kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জাপানি মন্ত্রীর সাথে রাশেদ খান মেননের বৈঠক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:১০



জাপানি মন্ত্রীর সাথে রাশেদ খান মেননের বৈঠক

জাপান সফররত বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন আজ জাপানের ল্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার, ট্রান্সপোর্ট এন্ড ট্যুরিজম (এমএলআইটি) মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী কেইচি ইশি’র সাথে এক বৈঠকে মিলিত হন।
বৈঠকে জাপান-বাংলাদেশের মধ্যে চলমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও সহযোগিতা আরো দৃঢ় করার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

দু’পক্ষ বিমানবন্দর নির্মাণ, ব্যবস্থাপনা, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে ও পর্যটন ক্ষেত্রে একসঙ্গে কাজ করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন।
জাপানের মন্ত্রী এ ক্ষেত্রে জাপানের অভিজ্ঞতা ও কারিগরি জ্ঞান দ্বারা বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবেন বলে জানান।
এ ছাড়া তিনি সম্ভাব্য সকল সুযোগ কাজে লাগিয়ে জাপানি কয়েকটি বিমান পরিবহন সংস্থার মাধ্যমে টোকিও-ঢাকা ফ্লাইট চালুর ক্ষেত্রে উদ্যোগ গ্রহণের প্রতিশ্রুতি দেন।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরী ও জাইকা’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কোশিকাওয়া বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নমূলক প্রকল্পে ও আন্তর্জাতিক মানের বিমানবন্দর নির্মাণের ক্ষেত্রে জাইকা কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে বলে জাইকার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট উল্লেখ করেন।
এ ছাড়া জাইকা সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত জাপানের বিভিন্ন কনস্ট্রাকশন, ম্যানুফ্যাকটারিং এবং সাপ্লাই সেক্টরের কোম্পানির ১০০ জন প্রতিনিধিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত একটি সেমিনারে মন্ত্রী রাশেদ খানন মেনন যোগদান করেন। সেমিনারে বাংলাদেশের বিমানবন্দরসমূহে গৃহিত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প, বিমানবন্দরসমূহে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা, বিদেশি নাগরিক এবং ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা প্রদান বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ উপস্থাপন করা হয়।
এতে প্রতিনিধিগণ সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং বাংলাদেশ ভ্রমণে ও বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য, জাইকা’র সহায়তায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৩য় টার্মিনাল নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। জাপান বাংলাদেশে আরো নতুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।


মন্তব্য