kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিআইডাব্লিউটিসির ঈদ স্পেসাল সার্ভিস কাল শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:১৮



বিআইডাব্লিউটিসির ঈদ স্পেসাল সার্ভিস কাল শুরু

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন সংস্থা (বিআইডাব্লিউটিসি) পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে আগামীকাল ৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার থেকে ঈদ স্পেসাল সার্ভিস শুরু করবে।  
রাষ্ট্রীয় এই সংস্থার ৫টি জাহাজ নিয়ে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিশেষ এই সেবা অব্যাহত থাকবে।

 
এ ছাড়া আগামী ৯ সেপ্টম্বর থেকে ২১টি লঞ্চের মাধ্যমে বেসরকারি লঞ্চ মালিকদের সংগঠন অভ্যন্তরীণ যাত্রী পরিবহন সংস্থা বিশেষ সার্ভিস শুরু করবে।
বরিশাল বিআইডব্লিউটিসি’র সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক সৈয়দ আবুল কালাম আজাদ আজ বাসস’কে জানান, আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে সংস্থার ঈদের বিশেষ স্পেশাল সার্ভিস। ঈদে ঘরে ফেরা মানুষদের যাত্রী সেবা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকা থেকে এমভি বাঙালী ও সাড়ে ৬টায় এমভি মধুমতি ছেড়ে আসবে।
তিনি বলেন, এবার সংস্থার নিয়মিত ৫টি জাহাজ যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত থাকবে। এগুলো হলোÑ পিএস মাহসুদ, অস্ট্রিচ, লেপচা, এমভি মধুমতি ও বাঙালী। এর মধ্যে পিএস টার্ন’র সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। এসব জাহাজ বরিশাল-ঢাকা-চাঁদপুর, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, হুলারহাট ও মোড়েলগঞ্জ রুটে চলাচল করবে।  
আবুল কালাম আজাদ আরো জানান, ঘরমুখো যাত্রীদের ভোগান্তি লাঘবে জাহাজের ৫০ ভাগ টিকেট আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে দেয়া হয়েছে। বরিশাল অঞ্চলের অভ্যন্তরীণ নৌ-রুটে বিআইডব্লিউটিসি’র ৪টি সি-ট্রাক নিয়মিত চলাচল করবে। এগুলো হলোÑ বরিশাল-মজু চৌধুরীর হাট রুটে খিজির-৮, ইলিশা-মজু চৌধুরী খিজির-৫ এবং খিজির-৭ ও মনপুরা থেকে শশিগঞ্জ রুটে শেখ কামাল যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত থাকবে।
১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিশেষ সার্ভিস চালু থাকার কথা থাকলেও যাত্রীদের চাপ বেশি থাকলে তা বাড়ানো হতে পারে। এ ছাড়া জাহাজের ভাড়া না বাড়িয়ে পূর্বের মতই রাখা হয়েছে।
অপরদিকে, বেসরকারি লঞ্চ মালিকদের সংগঠন অভ্যন্তরীণ যাত্রী পরিবহন সংস্থা আগামী ৯ সেপ্টেম্বর থেকে বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটে ঈদের বিশেষ লঞ্চ সার্ভিসের যাত্রী সেবা শুরু করবে। বরিশাল-ঢাকা রুটে এবার ২১টি বিলাসবহুল লঞ্চের মাধ্যমে ঈদে ঘরে ফেরা মানুষকে পৌঁছে দেয়া হবে। এগুলো হলোÑ কীর্তনখোলার ২টি, সুন্দরবন কোম্পানির ৩টি, পারাবতের ৫টি, সুরভীর ৩টি, এমভি টিপু, এমভি ফারহান, দ্বীপরাজ ও কালাম খান।  
এ ছাড়া পটুয়াখালী-ঢাকা ভায়া বরিশাল রুটে আরো ৪টি লঞ্চ চলাচল করবে। পাশাপাশি যাত্রী পরিবহনে গ্রীন লাইন ওয়াটার ওয়েজের দিবা সার্ভিসে নিয়মিত ২টি জাহাজ যুক্ত থাকবে।


মন্তব্য