kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নির্ধারিত স্থানে কোরবানির আহ্বান সাঈদ খোকনের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:১১



নির্ধারিত স্থানে কোরবানির আহ্বান সাঈদ খোকনের

সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত স্থানে কোরবানির পশু জবাইয়ের জন্য নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন। আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর নগর ভবনে কোরবানির বর্জ্য দ্রুত ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে রাজধানীর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নাগরিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এ আহ্বান জানান তিনি।

সাঈদ খোকন বলেন, কোরবানিকে কেন্দ্র করে আমরা সব আয়োজন করছি। নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানি করা হলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন শহর বজায় রাখা সম্ভব হবে। মক্কা, মদিনাতেও নির্দিষ্ট স্থান ছাড়া কোরবানি করা হয় না।

আমরাও চাই দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানি হোক। আর তাই ৫৮৩টি স্থান নির্ধারণ করেছি। নাগরিকদের অনুরোধ করছি যত্রতত্র কোরবানি না করে নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানি করতে। বাসায় কোরবানি করলেও বর্জ্য নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন। পানির গাড়ি রেডি থাকবে। আপনারা যেখানে পশু কোরবানি করবেন সেখানে পানি ঢেলে ব্লিচিং পাউডার দিয়ে পরিষ্কার করুন। ঈদের দিন দুপুর ২টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে কোরবানির বর্জ্য পরিষ্কারের প্রতিশ্রুতি দেন সাঈদ খোকন।

ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিল্লাল বলেন, ব্যাগ, ব্লিচিংসহ প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র বিতরণের জন্য কাউন্সিলরদের সহযোগিতা প্রয়োজন। নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানির কথা কিন্তু হাদিসেই বলা অাছে। জুমার দিনে ইমাম সাহেবগণ যদি খুতবায় এসব বিষয়ে একটু বলেন তাহলে মানুষ তা মেনে চলবে। ইমাম সাহেবদের কাছে অনুরোধ তারা যেন ঈদের আগের শেষ খুতবায় কোরবানির পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে কথা বলেন। কোরবানির বর্জ্য নিজ দায়িত্বে নাগরিকদের নির্দিষ্ট স্থানে ফেলা উচিত। যত্রতত্র কোরবানির বর্জ্য ফেলবেন না।

 


মন্তব্য