kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভাড়াটিয়াদের প্রকৃত তথ্য নিয়ে বাড়ি ভাড়া দেয়ার আহ্বান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:২৬



ভাড়াটিয়াদের প্রকৃত তথ্য নিয়ে বাড়ি ভাড়া দেয়ার আহ্বান

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ভাড়াটিয়াদের প্রকৃত তথ্য নিয়ে বাড়ি ভাড়া দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি আজ দুপুরে রাজধানীর রমনা থানায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কর্তৃক প্রণীত সিটিজেন ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিআইএমএস) নামে একটি সফট্ওয়ার এর উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন।


ডিএমপি কমিশনার বলেন, সিআইএমএস সফট্ওয়ার সিস্টেমে সকল ভাড়াটিয়ার তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। তাদের প্রত্যেকের জন্য একটি ইউনিক আইডি নম্বর হবে। বাসা বদল করে তিনি নগরীর যেখানেই বসবাস করেন না কেন তিনি সে আইডি নম্বরেই পরিচিত হবেন।
বিট পুলিশিং কার্যক্রমে নগরবাসীর আন্তরিক সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে ডিএমপি কশিনার বলেননগরবাসী এ ব্যাপারে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছেন এবং এ পর্যন্ত ১৮ লাখ ৭৮ হাজার ২৩০টি তথ্য ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে যার মধ্যে আনুমানিক ১ কোটি লোকের ব্যক্তি পরিচিতিমূলক তথ্য আমাদের নিকট সংরক্ষিত আছে।
এ সময় আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন-সংগৃহীত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা এবং তথ্য উপাত্ত অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে বৈজ্ঞানিক উপায়ে ব্যবহারের জন্য একটি সমন্বিত ডাটা বেইস করার জন্য প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল। তারই ধারাবাহিকতায় ডিএমপি সিটিজেন ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিআইএমএস) নামে একটি সফট্ওয়ার প্রণয়ন করেছে।
বিট পুলিশিং কার্যক্রমের সুফল বর্ণনা করে ডিএমপি কমিশনার বলেন,বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে অপরাধ ও অপরাধীদের তথ্য সংগ্রহ জোরদার করা, এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, বসবাসকারীদের কৌশলগত অবস্থান এবং এলাকাবাসী সম্পর্কে তথ্য ভান্ডার সৃষ্টি করার ফলে অপরাধ প্রতিরোধ এবং প্রতিকারে পুলিশের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে।
কমিশনার বলেন-অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং জঙ্গি সন্ত্রাসীদের কার্যক্রম প্রতিরোধকল্পে বিট পুলিশিং প্রথার একটি অন্যতম পদক্ষেপ হিসেবে বাড়ী/স্থাপনা/প্রতিষ্ঠানের মালিক এবং ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়।
ভূয়া নাম ঠিকানা ব্যবহার করে বাড়ি ভাড়া নিয়ে অপরাধ সংগঠন করার প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা থেকে তিনি বলেন-বিভিন্ন গবেষনায় দেখা যায় অপরাধী ও জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা বাড়ীর মালিকের অজ্ঞাতে ভূয়া নাম ঠিকানা ও পেশা ব্যবহার করছে কিংবা নাম ঠিকানা অপ্রকাশিত রেখে এবং কোন চুক্তি না করে বাড়ী ভাড়া নিচ্ছে। এতে তারা নির্বিঘেœ তাদের অপরাধ ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের মাধ্যমে নিরীহ নাগরিকদের নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি সৃষ্টিসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করার সুযোগ পাচ্ছে।


মন্তব্য