kalerkantho


শিল্পকলা পদক-২০১৫ বিতরণ করলেন রাষ্ট্রপতি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ মে, ২০১৬ ২০:৫৯



শিল্পকলা পদক-২০১৫ বিতরণ করলেন রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ স্ব স্ব ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে আজ সাতজন শিল্পীর হাতে শিল্পকলা পদক তুলে দেন। রাজধানীর বিএসএ ন্যাশনাল থিয়েটার হলে আজ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই পদক বিতরণ করা হয়।
প্রদকপ্রাপ্তরা হলেন- নৃত্যে সালেহা চৌধুরী, লোক সংস্কৃতিতে নাদিরা বেগম, নাটকে কাজী বোরহানউদ্দিন, মিউজিকে সুজেয় শ্যাম, আবৃত্তিতে নিখিল সেন, চিত্রকলায় সৈয়দ আবুল বারাক আলভি এবং সঙ্গিতে মিহির নন্দি।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি থিয়েটার, নৃত্য, ক্লাসিক মিউজিক, চিরাচরিত সঙ্গীত, চিত্রকলা, সঙ্গীত ও চলচিত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তাদের সম্মানিত করার জন্য ২০১৩ সালে ’শিল্পকলা পদক’ চালু করে।
সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সংস্কৃতি সচিব আখতারি মোমতাজ এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
পদকপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকার একটি চেক, একটি সর্টিফিকেট এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির একটি পদক পেয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ সারাবিশ্বে বাঙালী সংস্কৃতির ঐতিহ্য ছড়িয়ে দিতে ভূমিকা রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, বিশ্বের এই অংশের লোক সংস্কৃতির ঐতিহ্য খুবই পূরণো এবং সমৃদ্ধ। এই লোকসংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সংরক্ষণ করতে এবং তুলে ধরতে হবে। এটি বিশ্বব্যাপী সংস্কৃতি ও সভ্যতার জন্য মূল্যবান সম্পদ হতে পারে।
রাষ্ট্রপতি হামিদ বলেন, দেশে বিদেশে বাঙালী সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও বিকাশের জন্য বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ভূমিকা প্রশংসনীয়। রাষ্ট্রপতি বলেন, বিএসএ ইতোমধ্যেই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মসূচি আয়োজনের মাধ্যমে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্থান করে নিয়েছে।
রাষ্ট্রপতি মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে শিল্পীদের ভমিকা স্মরণ করে বলেন, শিল্পী সমাজ জাতির সময়ের প্রয়োজনে এবং সংকটকালে সাহসী ভূমিকা রাখছে। বিশিষ্ট শিল্পীদের সম্মানে বিএসএ’র শিল্পকলা পদক চালু করা দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে এগিয়ে নিয়ে যাবার ক্ষেত্রে একটি মাইল ফলক।
রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ শিল্পকলা পদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, আপনারা আপনাদের স্ব স্ব অঙ্গনে বিশেষ অবদান রাখার জন্য শিল্পকলা পদক পেয়ে সম্মানিত হয়েছেন। আপনারা কঠোর পর্র্যিম ও চর্চা করে আজ এ অবস্থানে এসে পৌঁছুতে পেরেছেন। ভবিষ্যতে তারা তাদের নিজ নিজ অবস্থানে আরো অবদান রাখতে এই পদক তাদের আরো উৎসাহিত করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।



মন্তব্য