kalerkantho


এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ১০:২৩



এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শুরু হয়েছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এবারের পরীক্ষায় প্রায় সোয়া ১২ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নেন। আজ রবিবার সকাল ১০টা থেকে এ পরীক্ষা শুরু হয়। প্রথম দিনের এইচএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্র, সহজ বাংলা প্রথম পত্র, বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংস্কৃতি প্রথম পত্র, বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্র (ডিআইবিএস) এবং আলিমে কোরআন মাজিদের পরীক্ষা রয়েছে। কারিগরিতে বাংলা-২ (১১২১) ও বিকেলে বাংলা-১ (১১১১) বিষয়ের পরীক্ষা হবে। সকালের পরীক্ষা ১০টা থেকে শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। আর বিকেলের পরীক্ষা হবে ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত।

এবার থেকে এই পরীক্ষায় প্রথমে বহু নির্বাচনী (এমসিকিউ) ও পরে রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। উভয় পরীক্ষার মধ্যে থাকবে ১০ মিনিটের বিরতি। আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে এবার ১২ লাখ ১৮ হাজার ৬২৮ জন পরীক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেবে।   যা গত বছরের তুলনায় এবার এক লাখ ৪৪ হাজার ৭৪৪ জন বেশি শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন পরীক্ষায়। এবার মোট অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৫৪ হাজার ১১৪ জন ও ছাত্রী ৫ লাখ ৬৪ হাজার ৫১৪ জন।

আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসিতে ১০ লাখ ২০ হাজার ১০৯ জন, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে আলিমে ৯১ হাজার ৫৯১ জন, কারিগরি বোর্ডের অধীনে এক লাখ ২ হাজার ১৩২ জন ও ডিআইবিএসে (ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ) ৪ হাজার ৭৯৬ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। নকলমুক্ত ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা নিতে সব প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শনিবার সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কোনো শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রীদের নকল করতে সহযোগিতা করলে তার বিরুদ্ধে সব রকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
প্রশ্ন ফাঁসসহ বিভিন্ন অপরাধের জন্য পাবলিক পরীক্ষা আইনে চার বছর পর্যন্ত জেল ও জরিমানার বিধান রয়েছে। এ ছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি আইনের শাস্তি সর্বোচ্চ ১৪ বছর কারাদণ্ড এবং সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা জরিমানা হতে পারে। লিখিত পরীক্ষা ৯ জুন শেষ হবে। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ১১ জুন শুরু হয়ে শেষ হবে ২০ জুন। এবার ৮ হাজার ৫৩৩টি প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা ২ হাজার ৪৫২টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। বিদেশে সাতটি কেন্দ্রে ২৬২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন।

 


মন্তব্য