kalerkantho


মু্ক্তিযুদ্ধের চেতনায় নান্দনিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করার জন্য রাষ্ট্রপতির আহ্বান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ২১:১১



মু্ক্তিযুদ্ধের চেতনায় নান্দনিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করার জন্য রাষ্ট্রপতির আহ্বান

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ মহান মু্ক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে নান্দনিক, জীবন ঘনিষ্ঠ ও সমাজ সচেতন চলচ্চিত্র নির্মাণে এগিয়ে আসার জন্য চলচ্চিত্র নির্মাতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
মো. আবদুল হামিদ ‘জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস-২০১৬’ উপলক্ষে এক বাণীতে চলচ্চিত্র শিল্পী ও কলাকুশলী, নির্মাতা, প্রযোজক, পরিবেশক, দর্শকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।


তিনি বলেন, চলচ্চিত্র অত্যন্ত শক্তিশালী গণমাধ্যম। চলচ্চিত্রের নান্দনিকতা, শিল্পবোধ, জীবন ও সমাজ ঘনিষ্ঠতা দর্শক হৃদয়কে গভীরভাবে প্রভাবিত করে। সচেতনতা সৃষ্টি এবং উন্নত সমাজ গঠনে চলচ্চিত্রের গুরুত্ব অপরিসীম।
রাষ্ট্রপতি বলেন, চলচ্চিত্রের গুরুত্ব উপলব্ধি করে আমাদের মহান নেতা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৭ সালের ৩ এপ্রিল শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী হিসেবে তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদে ‘চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন বিল-১৯৫৭’ উত্থাপন করেন। ফলশ্রুতিতে প্রতিষ্ঠিত হয় ফিল্ম ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন বা এফডিসি। সময়ের সাথে শিল্পী ও কলাকুশলীদের কর্মচাঞ্চল্যে এফডিসি হয়ে উঠে বাংলা চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রাণকেন্দ্র্র। এফডিসি প্রতিষ্ঠার ঐতিহাসিক দিন তথা ৩ এপ্রিলকে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস’ ঘোষণার মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমি আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বায়োস্কোপের পথ ধরে উপমহাদেশে চলচ্চিত্রের উন্মেষ ঘটে। নির্মিত হয় জীবনঘনিষ্ঠ নানা ছবি, যা দর্শক হৃদয়ে আজো স্থায়ী হয়ে রয়েছে। বর্তমানে তীব্র প্রতিযোগিতার যুগে চলচ্চিত্র শিল্পকে এগিয়ে নিতে মৌলিকত্বের উপর জোর দেয়া জরুরি।
সরকার চলচ্চিত্রের উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, চলচ্চিত্রকে শিল্প ঘোষণাসহ চলচ্চিত্র নির্মাণে আধুনিক সুযোগসুবিধা সৃষ্টির লক্ষ্যে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প এবং বাংলাদেশ ফিল্ম সিটি প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। ফিল্ম আর্কাইভের জন্য আধুনিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সিনেমা হল ডিজিটালকরণের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। জাতীয় চলচ্চিত্র নীতিমালা প্রণয়ন করা হচ্ছে।
তিনি তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এবং এফডিসির আয়োজনে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস’ ২০১৬ উদ্যাপনের সর্বাঙ্গীণ সাফল্য কামনা করেন।


মন্তব্য