kalerkantho

সোমবার । ১৬ জানুয়ারি ২০১৭ । ৩ মাঘ ১৪২৩। ১৭ রবিউস সানি ১৪৩৮।


'তারেক রহমান ইন্টারপোলকে বিভ্রান্ত করেছেন'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ মার্চ, ২০১৬ ২২:২৩



'তারেক রহমান ইন্টারপোলকে বিভ্রান্ত করেছেন'

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান লবিস্ট নিয়োগের মাধ্যমে ও বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের জারি করা রেড নোটিশ বাতিল করিয়েছেন বলে ধারণা করছে বাংলাদেশ পুলিশ।

আজ সোমবার বাংলাদেশ পুলিশ সদর দপ্তর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই কথা উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলাসহ অন্যান্য ১৩টি মামলায় অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি হওয়ায় গত বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারির জন্য ইন্টারপোলকে অনুরোধ করে বাংলাদেশ পুলিশ। ওই অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ইন্টারপোল সচিবালয় প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দলিলাদি বিশ্লেষণের পর রেড নোটিশ জারি করে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এনসিবি শাখা ধারণা করছে যে, উক্ত রেড নোটিশ জারির পর তারেক রহমান বিভিন্ন প্রকার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক লবির মাধ্যমে কমিশন ফর দ্য কন্ট্রোল অব ইন্টারপোল ফাইলসের (​সিসিএফ) কাছে তাঁর সপক্ষে বিকৃত ও বিভ্রান্তিকর তথ্য উপস্থাপন করেন, যার প্রেক্ষিতে ইন্টারপোল প্রথমে রিভিউ ও পরে রেড নোটিশ বাতিল করে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, রেড নোটিশটি রিভিউ করার পর্যায়ে এর কারণ সম্পর্কে জানতে ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানায়, তারেক রহমান প্রটেকটিভ স্ট্যাটাসে আছেন বিধায় তাঁর রেড নোটিশ বাতিল করার সুযোগ রয়েছে। প্রটেকটিভ স্ট্যাটাস বিষয়টি বোধগম্য না হওয়ায় কে বা কোন দেশ তাঁকে প্রটেকটিভ স্ট্যাটাস প্রদান করেছে জানতে চাইলে এ–সংক্রান্ত কোনো সন্তোষজনক সাড়া পাওয়া যায়নি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ধারণা করা হয়, রাজনৈতিক আশ্রয়ের মতোই প্রটেকটিভ স্ট্যাটাসও বিদেশে আশ্রয় গ্রহণের অন্য একটি উপায়। কোনো তদন্তাধীন ফৌজদারি মামলায় ও আসামিদের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারি করার বিধান ও দৃষ্টান্ত আছে। তারেক রহমান একাধিক ফৌজদারি মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি, যা আদালতে বিচারাধীন। তার পরও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে জারিকৃত রেড নোটিশ কেন প্রত্যাহার হবে, তা বাংলাদেশ পুলিশের কাছে বোধগম্য নয়। বাংলাদেশ পুলিশ এ ব্যাপারে ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে।


মন্তব্য