kalerkantho


প্রধানমন্ত্রীর নীরবতাই ধর্ষকদের উৎসাহিত করছে : হান্নান শাহ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মার্চ, ২০১৬ ১৪:৩৭



প্রধানমন্ত্রীর নীরবতাই ধর্ষকদের উৎসাহিত করছে : হান্নান শাহ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ বলেছেন, তনু হত্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নীরবতাই প্রমাণ করে যারা হত্যা গুম, খুন, ধর্ষণ করছে তাদেরকে তিনি উৎসাহিত করছেন। তিনি বলেন, তনু হত্যার নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। নিজের বিবেকের কাছেই আমি বিব্রত বোধ করছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় হচ্ছে এই অবৈধ সরকার ধর্ষণ হত্যা কিছুই মনে করে না। এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে শেখ হাসিনার নীরবতাই তা প্রমাণ করে। আজ দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট কাউন্সিল অব বাংলাদেশ আয়োজিত সোহাগী জাহান তনুর হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন।

হান্নান শাহ বলেন, সরকারের আস্কারার কারণেই ক্যান্টনমেন্টের মতো একটি সুরক্ষিত জায়গায় তনুকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে। সরকার সকল ক্ষেত্রে দ্বিমুখী আচরণ করছে। যদি আওয়ামী লীগের অনুসারীরা কোনো অপরাধ করলে সরকার নীরব, কিন্তু বিএনপি হলে সরকার সরব। এ সময় তিনি প্রজ্ঞাপন জারি করে সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাদের নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে তনু হত্যার আসল রহস্য উদঘাটন ও অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। একই দাবিতে অপর এক মানববন্ধনে বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, মানুষ আজ বেডরুম থেকে শুরু করে সীমান্তে, এমনকি দেশের সর্বোচ্চ সুরক্ষিত জায়গা ক্যান্টনমেন্টের মতো এলাকায়ও নিরাপদ নয়।

তিনি বলেন, সাগর-রুনীকে বেডরুমে হত্যা করা হয়েছিল। ফেলানীকে সীমান্তের কাঁটাতারে ঝুলিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এখন আবার তনুকে ক্যন্টনমেন্টে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো হত্যাকাণ্ডের সঠিক বিচার হয়নি। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ইয়াসমিন হত্যাকাণ্ডের সময় আপনি রাস্তায় নেমে আন্দোলন করেছিলেন। কিন্তু এখন নীরব কেন? আপনি জনগণকে কি বুঝানোর চেষ্টা করছেন। দেশে আইনের শাসন না থাকার কারণে এমন হত্যাকাণ্ড হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 


মন্তব্য