kalerkantho


জঙ্গি-বৈষম্য-দুর্নীতিমুক্ত সমৃদ্ধি-সুশাসনের বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার তথ্যমন্ত্রীর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৯:৩৯



জঙ্গি-বৈষম্য-দুর্নীতিমুক্ত সমৃদ্ধি-সুশাসনের বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার তথ্যমন্ত্রীর

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে জঙ্গি-রাজাকার, বৈষম্য ও দলবাজী-দুর্নীতি থেকে মুক্ত শান্তি-সমৃদ্ধি ও সুশাসনের বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বাধীন বাংলাদেশ এতদিনে আরো এগিয়ে যেতে পারতো, কিন্তু সামরিক হস্তক্ষেপ ও সাম্প্রদায়িক জঙ্গিবাদের উৎপাত সে অগ্রযাত্রাকে ব্যহত করেছে।
তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি আজ রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণ থেকে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের পতাকা মিছিল উদ্বোধনকালে এ অঙ্গীকার করেন।
জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মীর হোসেন আখতারের সভাপতিত্বে জাসদ নেতৃবৃন্দের মধ্যে শিরীন আখতার এমপি, অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, সহিদুল ইসলাম, নারী জোট আহ্বায়ক আফরোজা হক রীনা, শ্রমিক জোট সাধারণ সম্পাদক নাঈমুল আহসান জুয়েল প্রমূখ সমাবেশে দেশ গড়ার প্রত্যয়ী বক্তব্য রাখেন।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াচ্ছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গত সাত বছর ধরে সামরিক-সাম্প্রদায়িক জঞ্জাল ঘুচিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর মাধ্যমে আমরা যা অর্জন করেছি, তাকে আরো একধাপ এগিয়ে নিতে দেশকে জঙ্গি-রাজাকার, বৈষম্য ও দলবাজী-দুর্নীতি থেকে মুক্ত করতে হবে। ’
‘সেজন্য যা প্রয়োজন তা করতে হবে’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রয়োজন জঙ্গিবাদ এবং জঙ্গি-পাহারাদার বিএনপি-খালেদা জিয়াকে বর্জন করতে হবে। কারণ খালেদা জিয়া এবং বিএনপি এখনও বঙ্গবন্ধু, একাত্তরের শহীদ ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে মিথ্যাচার করে চলেছে, এখনও তারা জামাত-জঙ্গি-আগুনসন্ত্রাসী-যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গ ত্যাগ করেনি।
তথ্যমন্ত্রী ইনু বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে যারা জাতির পিতা বলে না এবং রাজাকারের হাত ধরে থাকে, তারা পাকিস্তানী ভূত ও নব্যরাজাকার। ’

 


মন্তব্য