kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে : নাসিম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪৪



২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে : নাসিম

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে বলেছেন, ষড়যন্ত্র করে কোনও লাভ হবে না, ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধিনেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র হিসেবে বলতে চাই আগামী নির্বাচন ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই হবে। এর কোনও বিকল্প হবে না। মাঠ গরম করতে চান করতে পারেন। কর্মীদের বুঝ (আশা) দিতে চান দিতে পারেন। কোন অসুবিধা নেই। ’
নাসিম আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘মহান স্বাধীনতার ৪৫ বছর, জঙ্গীবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।
সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে সভায় সাম্যবাদী দলের পলিট ব্যুরো সদস্য এম এ গণি, ওয়াকার্স পাটির পলিটব্যুরো সদস্য কামরুল আহসান, গণতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা.শাহাদাত হোসেন, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহ্বায়ক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিহীন আগামী জাতীয় নির্বাচনের স্বপ্ন না দেখতে খালেদা জিয়ার প্রতি আহবান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বেগম জিয়া কিভাবে বললেন শেখ হাসিনাকে বাদ একটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত করব। তিনি এটা জানলেন কোথা থেকে। এটি তো সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে মীমাংসিত হয়ে গেছে। তাই আগামী জাতীয় নির্বাচন অবশ্যই বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই হবে।
দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে এখন শান্তিময় পরিস্থিতি বিরাজ করছে দাবি করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, কিন্তু বেগম জিয়া নতুন ইস্যু নিয়ে কথা বলেছেন। লাভ কিছুই হবে না। জামায়াতকে সাথে নিয়ে মানুষকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ব্যর্থ আন্দোলন করেছেন। আকাশ-কুসুম স্বপ্ন দেখবেন না বেগম জিয়া। আপনি আপনার দলকে ধ্বংস করেছেন। কর্মীদের ক্ষতিগ্রস্ত করেছেন।
তিনি খালেদাকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, আপনি এখনো শেখ হাসিনার অধীনেই স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন। গতকালকেও করেছেন।


মন্তব্য