kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ইউপি নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, স্বতঃস্ফূর্ত এবং স্বচ্ছ হয়েছে : দীপু মনি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মার্চ, ২০১৬ ২০:২৪



ইউপি নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, স্বতঃস্ফূর্ত এবং স্বচ্ছ হয়েছে : দীপু মনি

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি বলেছেন, অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, স্বতঃস্ফূর্ত এবং স্বচ্ছ হচ্ছে।
আজ মঙ্গলবার বিকেলে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে দলের বক্তব্যে তুলে ধরতেই এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
দীপু মনি বলেন, প্রথাম ধাপে ৭১৭ ইউনিয়ন পরিষদের সাড়ে ছয় হাজারেরও বেশি কেন্দ্রে ভোট হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ১৮টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত হয়েছে। এই অনিয়ম তেমন ধর্তব্যের মধ্যে পড়ে না। শতকরা ৯৯ দশমিক ৭২ ভাগ ভোট সুষ্ঠু হয়েছে।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি তাদের মিথ্যাচারের ইতিহাসের সঙ্গে সংগতি রেখে আজকের নির্বাচন নিয়েও একই কায়দায় মিথ্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। তারা এই নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা এবং বিশ্বাসযোগ্যতাকে নষ্ট করবার জন্যে আবার মাঠে নেমেছেন।
তিনি বলেন, প্রহসনের ইউপি নির্বাচন হওয়ার কোনো প্রশ্নই আসে না। এসব অভিযোগ করে বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সব চেয়ারম্যান প্রার্থী, সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদের প্রার্থীদের অপমানিত করছে।
নির্বাচন কমিশন ‘দলীয় কমিশন’ বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান সার্চ কমিটি গঠন করে এই নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। সেখানে বিএনপিও অংশ নিয়েছিল। নির্বাচন কমিশন অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে সহিংসতা দমন করতে সক্ষম হয়েছে। নির্বাচনকালীন সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নির্বাচন কমিশনের অধীনে থাকে এবং তারা সহায়তা করছেন। সুতরাং এই নির্বাচন কমিশনকে বিএনপির দলীয় কমিশন বলার কোনো ভিত্তি নেই।
সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট সম্পর্ন হওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদের ভোটার, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মী ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের প্রতি ধন্যবাদ জানান তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সুজিত রায় নন্দী ও আমিনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য