kalerkantho

শুক্রবার । ২০ জানুয়ারি ২০১৭ । ৭ মাঘ ১৪২৩। ২১ রবিউস সানি ১৪৩৮।


সাইবার অপরাধ প্রশিক্ষণ ও তদন্ত কেন্দ্রের কার্যক্রম পুরোদমে চলছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৬ ২৩:১৬



সাইবার অপরাধ প্রশিক্ষণ ও তদন্ত কেন্দ্রের কার্যক্রম পুরোদমে চলছে

দেশের প্রথম সাইবার অপরাধ প্রশিক্ষণ ও তদন্ত কেন্দ্রের কার্যক্রম এই মাস থেকে পুরোদমে চলছে। তদন্ত কেন্দ্র ২২০টি ফরেনসিক তদন্ত সম্পন্ন করেছে এবং আরো শতাধিক ঘটনা পাইপলাইনে রয়েছে।
প্রকল্প পরিচালনা ও ঢাকা মেট্রোপলিটন (উত্তর) এর সিআইডি’র পুলিশ সুপার রেজাউল হাওলাদার আজ বাসসকে জানান, ‘সাইবার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং সাইবার তদন্ত কেন্দ্র (সিআইসি) এর কার্যক্রম এ মাস (মার্চ) থেকে পুরোদমে চলছে। এ দুটো কেন্দ্র স্থাপনের কাজ ইতোমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। ’
এনহান্সিং সাইবার ইনভেস্টিগেশন ক্যাপাসিটি অব বাংলাদেশ পুলিশ প্রকল্পের আওতায় এই দু’টি কেন্দ্র স্থাপনে ব্যয় হয়েছে ৩.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ২৮ কোটি টাকা)। এতে সরকার দিয়েছে ৪.৫ কোটি টাকা। বাকি টাকা দিয়েছে কেওআইসিএ। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে ২০১৮ সাল থেকে।
এই প্রকল্পের অধিকাংশ সরঞ্জাম কেনা হয়েছে কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে। কিছু কেনা হয়েছে জার্মানী থেকে। সিআইডি’র ৬ জন কর্মকর্তা ইতোমধ্যেই কোরিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয থেকে ৬ মাসের একটি প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এদের মধ্যে ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সমমানের একজন কম্পিউটার প্রোগ্রামার, দু’জন সহকারী পুলিশ সুপার ও তিনজন সাব-ইন্সপেক্টর।
প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সিআইডি কর্মকর্তাবৃন্দ এবং কোরিয়ার দু’জন কম্পিউটার বিশেষজ্ঞ অন্যদের প্রশিক্ষণ দেবেন। বর্তমানে বাংলাদেশের উপযোগী একটি সিলেবাস তৈরির প্রস্তুত চলছে।
তদন্ত কেন্দ্রের রয়েছে তিনটি বিভাগ। এগুলো হলো- (১) মেবাইল ফরেন্সিক, (২) কম্পিউটার ফরেন্সিক ও (৩) সিস্টেম ফরেন্সিক।
মোবাইল ফরেন্সিক-এর কাজ হলো মোবাইল ফোন থেকে তথ্য নিয়ে যাচাই করা। কম্পিউটার ফরেন্সিক-এর কাজ হলো কম্পিউটার ও ল্যাপটপ থেকে তথ্য নিয়ে যাচাই করা এবং সিস্টেম ফরেন্সিক-এর কাজ হলো হার্ডওয়্যার। সিসিটিভি, পেন ড্রাইভ ও অন্যান্র ডিভাইস থেকে তথ্য নিয়ে যাচাই করা। - বাসস।


মন্তব্য