kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


'সুষম আয়ের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের বিকল্প নেই'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৬ ১৯:২১



'সুষম আয়ের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের বিকল্প নেই'

পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ধনী-গরীবের মধ্যে আয় বৈষম্য কমাতে না পারলে প্রবৃদ্ধি বাড়লেও দরিদ্রের হার কমানো সম্ভব নয়। টেকসই উন্নয়ন ও সুষম আয়ের জন্য যথাযথ পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের বিকল্প নেই।
মন্ত্রী আজ ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে ইউএনডিপি আয়োজিত বাংলাদেশে শহরের দারিদ্র হ্রাস সংক্রান্ত দু‘দিনব্যাপী ‘রিজিওনাল এক্সচেঞ্জ’ শীর্ষক কর্মসূচির সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, অর্থনীতি এবং দারিদ্রতা হাত ধরাধরি করে চলে । আয় বৈষম্য স্বাভাবিক থাকলে শতকরা একভাগ প্রবৃদ্ধি বাড়লে শতকরা তিনভাগ দারিদ্রতা কমে আসে । আয় বৈষম্য বেশী হলে প্রবৃদ্ধি বাড়লেও দারিদ্র্যের হার সে হারে কমে না।
টেকসই উন্নয়নের জন্য ধনী দরিদ্রের বৈষম্য কমিয়ে সামষ্টিক জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের বিকল্প নেই উল্লেখ করে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বর্তমান সরকার সামষ্টিক জনগোষ্ঠীর সুষম উন্নয়নে যুগান্তকারি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন স্বপ্ন দেখান এবং তা বাস্তবায়ন হলে আরেকটি শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত সাত বছরে বাংলাদেশে অভাবনীয় অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বে অর্থনৈতিক সক্ষমতার তালিকায় ৩২তম স্থান দখল করতে সক্ষম হয়েছে । এ ধারা অব্যহত থাকলে আগামী ২০৩০ সালে বাংলাদেশ বিশ্বে ২৩তম অর্থনৈতিক শক্তিশালী দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে ।
তিনি বলেন, জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল সমৃদ্ধ সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার । তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ সে স্বপ্ন পূরণের দ্বার প্রান্তে ।
অনুষ্ঠানে নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র সেলিনা হায়াত আইভি , ইউএনডিপি‘র কান্ট্রি ডাইরেক্টর পলিন তামেসিশ বক্তৃতা করেন ।
অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচিত প্রতিনিধিগণ অংশ নেন।


মন্তব্য