kalerkantho


'২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিআরডিবির বাজেট বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয়া হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মার্চ, ২০১৬ ২০:১৬



'২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিআরডিবির বাজেট বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয়া হবে'

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন গ্রামীণ অর্থনীতির বিকাশে আগামী বাজেটে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের (বিআরডিবি) বাজেট বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।
তিনি বলেন, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিআরডিবি’র বাজেট বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয়া হবে। খন্দকার মোশাররফ আজ রোববার সচিবালয়ে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সভা কক্ষে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব এম এ কাদের সরকারের অন্য মন্ত্রণালয়ে বদলি ও ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. প্রশান্ত কুমার রায়ের এ মন্ত্রণালয়ে যোগদান উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
ক্ষুদ্র ঋণদান কর্মসূচির উদ্ভাবক কুমিল্লাস্থ বার্ড’কে ক্ষুদ্র ঋণদান কর্মসূচির উদ্ভাবক হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আইআরডিবি (বর্তমানে বিআরডিবি) গ্রামীণ ব্যাংকের অনেক আগে থেকে এ কর্মসূচি চালু করে।
মস্ত্রী নবাগত সচিবকে একজন কর্মঠ ও দক্ষ কর্মকর্তা এবং বিদায়ী সচিবকে কাজের প্রতি আন্তরিক ও হাসি-খুশী মানুষ হিসেবে উল্লেখ করেন।
এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ সরকারি চাকুরীতে আগমন ও বিদায়কে একটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া হিসেবে অভিহিত করে বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশ ও জনগণের কল্যাণের লক্ষ্যে কাজে সদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তিনি সচিবদ্বয়কে মেধাবী, অভিজ্ঞ ও প্রজ্ঞাবান হিসেবে উল্লেখ করেন।
ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. প্রশান্ত কুমার রায় তাকে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের মতো জনকল্যাণধর্মী বিভাগের দায়িত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
তিনি বর্তমান সরকারের চলমান পল্লী উন্নয়ন ও ও দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচিকে সফল করতে টিম স্পিড নিয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বিদায়ী সচিব এম এ কাদের তার নতুন দায়িত্বের কথা উল্লেখ করে বলেন, বর্তমান সরকারের একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাস্তবায়নে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগে থেকে কাজ করার অভিজ্ঞতাকে তিনি কাজে লাগাতে চান। তার এ বিভাগে প্রায় ৩ বছর সময়কালে দেশের দারিদ্র্যতার হার শতকরা ১০ ভাগ হ্রাস পাওয়ায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।
স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মোঃ আবদুল মালেকসহ পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।


মন্তব্য