kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


শাহজালাল বিমানবন্দরের সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মার্চ, ২০১৬ ২০:০৫



শাহজালাল বিমানবন্দরের সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সার্বিক নিরাপত্তা বিধানে সরকার প্রয়োজনীয় সকল ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।
ঢাকা থেকে সরাসরি পণ্য বোঝাই কার্গো চলাচলে যুক্তরাজ্য আরোপিত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার কল্পে গঠিত স্টিয়ারিং কমিটির ২য় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
আজ রোববার বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি।
আজ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটিয়ে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে উন্নীত করা, জনবলের প্রশিক্ষণ ও যন্ত্রপাতির যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকে কার্গোতে কওে সরাসরি পণ্য পরিবহনে যুক্তরাজ্য আরোপিত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার কল্পে গঠিত স্টিয়ারিং কমিটির ২য় সভায় ইউকে ডিপার্টমেন্ট অব ট্রান্সপোর্ট’র প্রদত্ত প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ প্রণীত টিপিপি’র ওপর বিস্তারিত আলোচনা হয়।
সভায় জানানো হয় ‘যেহেতু ২০ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ ২০১৬-এর মধ্যে বিমানবন্দরে দৃশ্যমান নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে হবে সে কারণে যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিদলের সুপারিশকৃত পরামর্শক সেবা পিপিআর/২০০৮ এর আওতামুক্ত করে গ্রহণ করতে হবে। এজন্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকে অর্থনৈতিক সংক্রান্ত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে একটি প্রস্তাব প্রেরণ করা হবে। ’
উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিদলের সাথে বাংলাদেশ সরকারের উচ্চ পর্যায়ের এক বৈঠকে পণ্য পরিবহনে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা উঠানোর বিষয়ে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপিকে চেয়ারম্যান করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট এ স্টিয়ারিং কমিটি গঠিত হয়।


মন্তব্য