kalerkantho


ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী পাইপ লাইন সহযোগিতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত : শ্রিঙ্গলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪৪



ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী পাইপ লাইন সহযোগিতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত : শ্রিঙ্গলা

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিঙ্গলা বলেছেন, ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী পাইপ লাইন হবে জ্বালানি সেক্টরে দিল্লী-ঢাকা সহযোগিতার ক্ষেত্রে একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।
তিনি বলেন, আমি আশাবাদী আমরা খুব শিগগিরই ভারত-বাংলা মেত্রী পাইপ লাইনের (আইবিএফপিএল) উদ্বোধন দেখতে পাব। ইতোমধ্যেই দু’দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।
ভারতের হাইকমিশনার আজ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ভারত থেকে আসা ডিজেলবাহী একটি পরিবহন ট্রেন রিসিভকালে এ কথা বলেন। ভারত শুভেচ্ছা স্বরূপ এই জ্বালানি তেল বাংলাদেশে পাঠিয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মো. মাহমুদ রেজা খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
তিনি বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিশেষ করে জ্বালানি সেক্টরে বন্ধুত্ব ও সহযোগিতা বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে এই মুহূর্তটি খুবই তাৎপর্যপূর্ণ।
গত বছরের জুন মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকালে গৃহীত ‘নতুন প্রজন্ম, নয়িদিশা’ যৌথ ঘোষণায় সহযোগিতার রূপরেখা রয়েছে।
ভারতের দূত বলেন, ‘নতুন প্রজন্ম নয়িদিশা’-এর চেতনায় বাংলাদেশের পেট্রোলিয়ামের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে পেরে আমরা খুবই খুশি।
তিনি বলেন, ভারত সকল সেক্টরে ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশী বাংলাদেশের সঙ্গে আরো সহযোগিতা প্রদানে অধিকর আগ্রহে প্রতীক্ষা করছে। আমরা উপ-আঞ্চলিক ও আঞ্চলিক অর্থনৈতিক প্রবাহে আরো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে চাই।
১৩০ কিলোমিটার পাইপ লাইনের মাধ্যমে বাংলাদেশে জ্বালানি তেল সরবরাহে ২০১৫ সালের ২০ এপ্রিল ভারতের নুমালিগড় রিফাইনারি লি. (এনআরএল) এবং বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়।
পশ্চিমবঙ্গে এনআরএল’র শিলিগুড়ি মার্কেটিং টার্মিনাল থেকে দিনাজপুরে বিপিসি’র পার্বতীপুর পেট্রোলিয়াম ডিপো পর্যন্ত একটি পাইপলাইন যৌথ উদ্যোগে করা হয়।
ভারতের পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান গত বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ি ২২০০ টন ডিজেলবাহী ট্রেনের যাত্রা উদ্বোধন করেন। - বাসস।


মন্তব্য