kalerkantho


আরও একধাপ এগিয়ে গেল নৌবাহিনী : প্রধানমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ১২:৫৭



আরও একধাপ এগিয়ে গেল নৌবাহিনী : প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশের বিশাল জলসীমার সুরক্ষায় নৌবাহিনীর আভিযানিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে নৌবহরে সংযোজিত হলো নতুন তিনটি আধুনিক যুদ্ধজাহাজ। নাম বানৌজা সমুদ্র অভিযান বানৌজা স্বাধীনতা ও বানৌজা প্রত্যয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার সকালে এই নৌজাহাজগুলোর কমিশন সম্পন্ন করেন। কমিশনিং শেষে দেওয়া সংক্ষিপ্ত ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এর মধ্য দিয়ে দেশের নৌবাহিনী আরও একধাপ এগিয়ে গেল। তিনি বলেন, এই সব জাহাজের প্রয়োজন কেবলই নৌবাহিনীর জন্য নয়, সমগ্র জাতির জন্যই এর প্রয়োজন।

এই অগ্রযাত্রায় সহযোগিতার জন্য দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। জাহাজ তিনটি নৌবাহিনীতে অন্তর্ভূক্তির ফলে দেশের বিশাল জলসীমার সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি সমুদ্রে অবৈধ অনুপ্রবেশ ও চোরাচালান রোধ, গভীর সমুদ্রে উদ্ধার তৎপরতা বৃদ্ধি, মৎস্য ও প্রাকৃতিক সম্পদক সংরক্ষণ, তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের ব্লকসমূহে অধিকতর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি সার্বিকভাবে দেশের ব্লু ইকোনমি উন্নয়নে সহায়ক হবে, বলেন প্রধানমন্ত্রী।

নৌবাহিনী সূত্র জানায়, বানৌজা সমুদ্র অভিযান বাংলাদেশ নৌবহরের নবম ফ্রিগেট স্কোয়াড্রনের দ্বিতীয় যুদ্ধজাহাজ। এই স্কোয়াড্রনের প্রথম যুদ্ধজাহাজ বানৌজা সমুদ্র জয় ২০১৩ সালে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে কমিশনিং করা হয়। ৩৩১৩ টন ওজনের সমুদ্র অভিযান যুদ্ধ জাহাজটির দৈর্ঘ্য ১১৫ মিটার। জাহাজটিতে ২টি ডিজেল ইঞ্জিন এবং ২টি গ্যাস টারবাইন রয়েছে।

অপরদিকে চীন থেকে আনা করভেট ক্লাসের মিসাইল ফ্রিগেট স্বাধীনতা ও প্রত্যয় জাহাজ দুটি দৈর্ঘ্যে ৯০ মিটার যা সর্ব্বোচ্চ ২৫ নটিক্যাল মাইল বেগে চলতে সক্ষম।

 


মন্তব্য