kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচন : কাল থেকে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচন : কাল থেকে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ

আর মাত্র চারদিন পর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোট। এ ধাপে ভোট হতে যাচ্ছে যেসব ইউপিতে সেসব ইউপিতে আগামীকাল শনিবার থেকে মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এসব নির্বাচনী এলাকায় এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে ভোটের দিন ২২ মার্চ, মঙ্গলবার মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ বলেন, সাধারণ নির্বাচন উপলক্ষে কতিপয় যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এবারও তাই করা হয়েছে। এক্ষেত্রে ভোটগ্রহণের তিনদিন আগে থেকে ভোটের দিন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রাখতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।  

এ ছাড়া নির্বাচন কমিশনের (ইসি) উপসচিব মো.সামসুল আলম স্বাক্ষরিত সড়ক বিভাগ,সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সচিব বরাবর পাঠানো নির্দেশনা থেকে জানা যায়, ভোটের দিনের আগের রাত ১২টা থেকে ভোটগ্রহণের দিন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত অটোরিকশা, ইজিবাইক, ট্যাক্সি ক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার, বাস,ট্রাক, টেম্পো প্রভৃতি যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে ভোটগ্রহণের তিন দিন আগে থেকে ভোটগ্রহণের দিন মধ্যরাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

নির্দেশনায় আরো বলা হয়েছে, রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বা তাঁদের নির্বাচনী এজেন্ট, দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) ক্ষেত্রে শিথিল থাকবে। তা ছাড়া নির্বাচনে সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশি-বিদেশি সাংবাদিক (পরিচয়পত্র থাকতে হবে),নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা কর্মচারি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শক এবং কিছু জরুরি কাজ যেমন-অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক, টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কাজে ব্যবহারের জন্য উল্লেখিত যানবাহনের চলাচলের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা থাকবে না।

এ ছাড়াও নির্দেশনায় বলা হয়েছে, জাতীয় মহাসড়ক (হাইওয়ে), বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা শিথিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা নিতে পারবে।  

এ ছাড়া সড়ক বিভাগ, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রণালয় সচিব বরাবর পাঠানো আরেকটি নির্দেশনায় নৌযান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞায় বলা হয়েছে, ভোটের দিনের পূর্ববর্তী রাত ১২টা থেকে ভোটগ্রহণের দিন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ, ইঞ্জিনচালিত সব ধরনের নৌযান ও স্পিডবোট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে বলা হয়েছে।  

তবে সেখানে সব ধরনের ইঞ্জিনচালিত নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা না দিয়ে শুধু লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌযান বা জনগণ তথা ভোটারদের চলাচলের জন্য ক্ষুদ্র নৌযান চলাচল নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়াও নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রধান প্রধান নৌপথে বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা শিথিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা নিতে পারবে। তবে ভোটার ও জনসাধারণের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম হিসেবে সব নৌযান চলাচলের ক্ষেত্রে ও দূর পাল্লার নৌযান চলাচলের ক্ষেত্রে এ নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

ইসির ঘোষণা অনুযায়ী, প্রথম ধাপে ২২ মার্চ, দ্বিতীয় ধাপে ৩১ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৩ এপ্রিল, চতুর্থ ধাপে ৭ মে, ৫ম ধাপে ২৮ মে ও ষষ্ঠ ধাপে ৪ জুন ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। প্রথম ধাপে দেশের ৭২১টি ইউনিয়নে (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।  

 


মন্তব্য