kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্তে নামছে তিতাস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১৮:০৯



ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্তে নামছে তিতাস

রাজধানীর বনানীতে বাসভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দারা গ্যাস লাইনের ত্রুটিকে দায়ী করার পর তদন্তে নেমেছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড কর্তৃপক্ষ।
রাজধানীর কারওয়ান বাজারে তিতাস ভবনে শুক্রবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ কথা জানান।
ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক-ও তিতাস কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকে দায়ী করেছেন।
তিনি বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের খোঁড়াখুঁড়ির কারণে গ্যাসের লাইন লিকেজ হয়নি। গ্যাসের লাইন লিকেজের বিষয়ে আমাদের লোক বেশ কিছুদিন আগে তিতাসের কমপ্লেইন বক্সে অভিযোগ করেছে। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। তিতাস, ওয়াসা, ডেসা ও সিটি করপোরেশনের মধ্যে সমন্বয়হীনতার কারণেই এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ’
বনানীর সেই বাড়ির মালিক শামসুল আলমের অভিযোগ, রাস্তায় গ্যাস লাইন লিক হয়েছিল। আগে থেকেই সেখান থেকে গ্যাসের বিকট গন্ধ পাওয়া যায়। অনেকবার তিতাস গ্যাসকে এ ব্যাপারে জানানো হলেও কোন ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।
এ ঘটনায় তিতাস কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ভবনের বাসিন্দারা থানায় মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।
ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন) মেজর একেএম শাকিল নেওয়াজ সাংবাদিকদের বলেন, ‘আগুন লাগার কারণ তদন্ত শেষে বলা যাবে। তবে ভবনের নিচের গ্যাস লাইনের লিকেজ পাওয়া গেছে। ’
এর আগে, রাজধানীর বনানী এলাকায় একটি আবাসিক ভবনে শুক্রবার মধ্যরাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজন বিভিন্ন মাত্রায় অগ্নিদগ্ধসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জানান।
বনানীর ২৩ নম্বর রোডের ৯ নম্বর ওই বাসায় ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট রাতভর কাজ করে আগুন পুরোপুরি নেভাতে সক্ষম হয়।


মন্তব্য