kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হরতালের প্রভাব নেই রাজধানীর জীবনযাত্রায়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৬ ১২:৫৩



হরতালের প্রভাব নেই রাজধানীর জীবনযাত্রায়

মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা-গণহত্যার দায়ে আলবদর বাহিনীর অন্যতম শীর্ষনেতা মীর কাসেম আলীর ফাঁসির রায় বহালের প্রতিবাদে আজ বুধবার দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে। আলবদর এ নেতাকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া ফাঁসির আদেশ মঙ্গলবার আপিল বিভাগ বহাল রাখার পর জামায়াতে ইসলামী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সারাদেশে এ হরতালের ডাক দেয়।

ভোর ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত হরতাল পালন করছে দলটি।

রাজধানীর আজিমপুর, প্রেসক্লাব, পল্টন, মতিঝিল, যাত্রাবাড়ি, কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট, বিজয় সরণি, জাহাঙ্গীর গেট, মহাখালী, বনানী, বিশ্বরোড, খিলক্ষেত, উত্তরার রাস্তায় গণপরিবহণসহ প্রায় সব ধরনের যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে। সড়কে ব্যক্তিগত যান চলাচল ছিল তুলনামূলক কম। তবে সব সড়কে রিকশার আধিক্য ছিল। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সড়কে ব্যক্তিগত গাড়িসহ সব ধরনের যানবাহন বাড়তে থাকে।

নগরবাসীর জীবনযাত্রায় হরতালে প্রভাব তেমনটা নেই। অন্য কর্মদিবসের মতোই স্বাভাবিক ছিল জনজীবন। কমলাপুর থেকে দেশের সব গন্তব্যে ট্রেন ছাড়ছে নির্ধারিত সময়ে। সদরঘাট থেকে নির্ধারিত সময়ে লঞ্চ ছেড়েছে। বিমানের সময়সূচিও অটুট রয়েছে বলে জানিয়েছে সিভিল অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। তবে নিরাপত্তা বিবেচনায় দূরপাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। রাজধানীর কোথাও হরতালের সমর্থনে মিটিং কিংবা পিকেটিং দেখা যায়নি।

এ পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে মোতায়েন রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য। অলিগলিতেও রয়েছে পুলিশ। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় তাদের প্রস্তুতি রয়েছে। এদিকে হরতালের বিপক্ষে রাস্তায় সরব রয়েছে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। গুলিস্তানে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ মহানগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে হরতালবিরোধী মিছিল করতে দেখা গেছে।

 


মন্তব্য