kalerkantho


'সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমান দক্ষতা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ মার্চ, ২০১৬ ১৮:৪৩



'সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমান দক্ষতা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে'

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেছেন, শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও সমান দক্ষতা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এখন আর কোন পার্থক্য নেই।

উভয়েই শিক্ষার্থীদের সুপ্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে কাজ করছে।
শিক্ষামন্ত্রী আজ রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ^বিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত একান্ত সচিব মো: সাইফুজ্জামান শেখর এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমানে ৩৮টি সরকারি এবং ৯১টি বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় উচ্চশিক্ষার প্রসারে কাজ করছে। তিনি বলেন, মুনাফালোভী প্রতিষ্ঠান যেন শিক্ষাকে কলুষিত করতে না পারে সে উদ্দেশে বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় আইন, ২০১০ প্রণয়ন করা হয়েছে।
শিক্ষাকে বিশ^মানের করার লক্ষ্যে ঢেলে সাজানো হয়েছে উল্লেখ করে নাহিদ বলেন, শিক্ষার্থীরা বছরের পহেলা জানুয়ারিই বই পাচ্ছে, নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে, ফলে শিক্ষার্থীদের আর সেশন জটে পড়তে হচ্ছেনা।
তিনি বলেন, সৃজনশীল পদ্ধতিতে শিক্ষা দানের পাশাপাশি ২৩ হাজার ৩৩১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম চালু করার ফলে শিক্ষার্থীরা জ্ঞান-বিজ্ঞানের পাশাপাশি তথ্য প্রযুক্তিতেও দক্ষ হয়ে উঠছে।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ধর্মীয় শিক্ষা প্রসারেও অত্যন্ত আন্তরিক। এ সরকারের আমলে এক হাজার ৩০০টি মাদ্রাসা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। ৩৫টি মডেল মাদ্রাসা এবং একটি ধর্মীয় বিশ^বিদ্যালয় চালু করা হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার পৃথক মাদ্রাসা বোর্ড প্রতিষ্ঠাসহ মাদ্রাসায় কর্মরত শিক্ষকদের সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করেছে।
সকল লোভ লালসার ঊর্ধ্বে থেকে শিক্ষার্থীরা যাতে মেধা, যোগ্যতা, দক্ষতা ও নৈতিকতা নিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখতে পারে, তিনি সে লক্ষ্যে শিক্ষকদের কাজ করার আহবান জানান।
বরেন্দ্র বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য মো: আয়েন উদ্দিন, সাবেক মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, ইউজিসির সদস্য ড. এম শাহ্ নাওয়াজ আলী, রাবি উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মিজানউদ্দিন, রুয়েটের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো: রফিকুল আলম বেগ, নর্থ বেঙ্গল ইন্টা: বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক, বরেন্দ্র বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম ওসমান গণি তালুকদার এবং যুক্তরাজ্যে দায়িত্ব পালনকারী সাবেক হাই কমিশনার ড. এম সাইদুর রহমান খান প্রমুখ বক্তৃতা করেন।


মন্তব্য