kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঢামেকে বাচ্চা চুরির সময় নারী আটক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৬ ১৮:৪১



ঢামেকে বাচ্চা চুরির সময় নারী আটক

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে দেড় বছরের এক শিশুকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পপি আক্তার (২০) নামের এক নারীকে আটক করেছেন দায়িত্বরত আনসার সদস্যরা। আজ শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিট থেকে তাঁকে আটক করা হয়।

ওই শিশুর নাম আয়েশা। তার মা রেহানা বেগম ও বাবা সবুজ মিয়া। রেহানা সাংবাদিকদের বলেন, তাঁর বাড়ি যশোরের চৌগাছায়। ছয় মাস আগে তাঁর স্বামী বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। ওই সময় স্বামীকে ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। তখন থেকে তিনি (রেহানা) শিশু আয়েশাকে নিয়ে হাসপাতালে অবস্থান করছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পপি আক্তার নামের ওই নারী বার্ন ইউনিটে যান। পপি তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা বলেন এবং বাচ্চাকে আদর করেন। পপি জানান, তাঁর একজন আত্মীয় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনে চিকিৎসাধীন।

মা রেহানা বলেন, আজ বিকেল ৩টার দিকে পপি আবার বার্ন ইউনিটে যান। তিনি বাচ্চাকে হাসপাতালের বেডে রেখে বাথরুমে যান। বের হয়ে দেখেন, বাচ্চা নেই, পপিও নেই। তখন তিনি চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন। অন্য রোগীর স্বজনেরাও চিৎকার করতে করতে বার্ন ইউনিটের প্রধান ফটকের দিকে ছুটে যান। তখন সেখানে দায়িত্বরত আনসার সদস্যরা পপিকে বাচ্চাসহ আটক করেন।

এ ঘটনায় আটক পপি সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, তিনি বাচ্চা চোর নন। তাঁর বাড়ি শরীয়তপুরের নড়িয়ায়। দুদিন আগে তিনি ঢাকা মেডিক্যালের নতুন ভবনের ৭০১ নম্বর ওয়ার্ডে মোসলেম মিয়া নামের একজনের কাছে আসছিলেন। তবে বাচ্চা নিয়ে কোথায় যাচ্ছিলেন তিনি-এ প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারেননি পপি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে দায়িত্বরত পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক মোজাম্মেল হক বলেন, পপিকে আটক করা হয়েছে। তাঁকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হবে।


মন্তব্য