kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ছেলেদের বিরুদ্ধে বৃদ্ধ বাবাকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৬ ১০:৩২



ছেলেদের বিরুদ্ধে বৃদ্ধ বাবাকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ

হবিগঞ্জে বৃদ্ধ বাবাকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে দুই ছেলের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে শহরের মাহমুদাবাদে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম কিতাব আলী (৭০)। তিনি হবিগঞ্জ শহরের মাহমুদাবাদ এলাকায় থাকতেন।

নিহত কিতাব আলীর বোন পুতুল বেগম অভিযোগ করেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তিনি তার ভাইয়ের মৃত্যুর খবর পান। কিন্তু কিতাব আলীর ছেলে-মেয়েরা তার ভাই-বোনসহ অন্যান্য আত্মীয়-স্বজনদের কোনো খবর না দিয়ে তাড়াতাড়ি করে লাশ দাফনের প্রস্তুতি নেয়। এরই মধ্যে বিভিন্ন মাধ্যমে নিহতের ছোট ভাই বিলাত মিয়া, বোন জমিলা বেগম ও পুতুল বেগম তাদের ভাই কিতাব আলীর মৃত্যুর খবর পেয়ে রাত ১০টায় দিকে তার বাসায় যান। এ সময় তারা কিতাব আলীর গলায় আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান। এতে তাদের সন্দেহ হয়, সন্তানরা কিতাব আলীকে হত্যা করেছে। তাৎক্ষণিক বিষয়টি তারা হবিগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশকে অবগত করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য অনুরোধ জানান।

পরে রাত ১১টার দিকে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই এ কে এম রাসেলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

কিতাব আলীর ছোট ভাই বিলাত মিয়া বলেন, নিহতের ছেলে জুনায়েদ মিয়া ওরফে জুয়েল ও আল-আমিন সম্পত্তির লোভে তার বাবাকে হত্যা করে আমাদের না জানিয়ে লাশ দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। সংবাদ পেয়ে আমরা এ বিষয়টি পুলিশকে জানাই।

হত্যার ঘটনা অস্বীকার করে কিতাব আলীর বড় ছেলে জুনায়েদ মিয়া জানান, তিনি সিলেটে তাবলিগ জামাতের চিল্লায় ছিলেন। সন্ধ্যার দিকে খবর পান তার বাবা স্ট্রোক করে মারা গেছেন। এ খবর পেয়ে তিনি বাসায় ফেরেন। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমার বাবা অ্যাজমায় আক্রান্ত ছিলেন। এর আগে আরো একবার স্ট্রোক করেছিলেন।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, অভিযোগের কারণে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।


মন্তব্য