নভেম্বর হতে জুন পর্যন্ত ২৫-331383 | জাতীয় | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


নভেম্বর হতে জুন পর্যন্ত ২৫ সেন্টিমিটারের ছোট জাটকা নিধন নিষিদ্ধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ মার্চ, ২০১৬ ২১:১৬



নভেম্বর হতে জুন পর্যন্ত ২৫ সেন্টিমিটারের ছোট জাটকা নিধন নিষিদ্ধ

ইলিশের বংশ বৃদ্ধি নিশ্চিত করা, জাটকা নিধন বন্ধ এবং ব্যাপক গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্য নিয়ে আজ থেকে শুরু হয়েছে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০১৬। ২ থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত চলবে এই সপ্তাহ। সরকার জাটকা ইলিশ রক্ষা করার জন্য নভেম্বর হতে জুন পর্যন্ত ২৫ সেন্টিমিটারের ছোট জাটকা নিধন নিষিদ্ধ করেছে।
জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০১৬ উপলক্ষে আজ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক মৎস্য অধিদফতর মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনের ১১ ভাগই আসে ইলিশ মাছ থেকে এবং জিডিপিতে ইলিশের অবদান প্রায় ১ ভাগ। উপকূলীয় অঞ্চলের প্রায় পাঁচ লাখ জেলে ইলিশ আহরণ করে এবং ২০-২৫ লাখ লোক প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে এতে জড়িত।
তিনি বলেন, সরকার জাটকা ইলিশ রক্ষায় ব্যাপক উদ্যোগ নিয়েছে। নভেম্বর হতে জুন পর্যন্ত ২৫ সেন্টিমিটারের কম জাটকা নিধন নিষিদ্ধ করেছে। নিষিদ্ধকালীন সময়ে জেলে পরিবারের জন্য ভিজিএফ খাদ্যসহায়তা, বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নির্বিচারে জাটকা নিধন এবং মা-ইলিশ রক্ষায় প্রজনন মৌসুমে ১৫ দিন প্রজনন এলাকাসহ দেশব্যাপী ইলিশ আহরণ, বিপণন ও পরিবহণ বন্ধে আইনের কঠোর বাস্তবায়নে প্রতিবছর জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহও পালন করা হচ্ছে।
সম্মেলনে জানানো হয়, কারেন্টজাল, বেহেন্দিজালসহ অবৈধ জাল দিয়ে নির্বিচারে ইলিশ নিধন বন্ধে এবারই প্রথমবারের মতো উপকূলীয় জেলায় অবৈধ জাল নির্মূল কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং ৪ থেকে ১৮ জানুয়ারি ২০১৬ পর্যন্ত ভোলা, পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলায় ৩২৯টি সম্মিলিত বিশেষ অভিযান এবং ১৬৪টি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। এতে ৮৮৩টি বেহেন্দিজাল ও মশারি চাইজাল আটক করা হয়েছে। এছাড়াও জাটকা রক্ষাসূচির আওতায় গত নভেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত ৩ মাসে ১৭৯টি মোবাইল কোর্ট ও ৪৯৮টি অভিযানের মাধ্যমে ১৯ টন জাটকা এবং ৭০ লাখ মিটার জাল আটক করা হয়েছে। এসময় ১ লাখ ২২ হাজার টাকার জরিমানা আদায়সহ ৩ জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
অপরদিকে জাটকা নিধন নিষিদ্ধকালীন সোয়া ২ লাখ জেলে পরিবারকে ভিজিএফ এর আওতায় দেড় লক্ষাধিক মেট্রিকটন খাদ্যসহায়তা দেয়া হয়েছে। পরিবার প্রতি ৪০ কেজির বদলে ৮০ কেজি করে চাল দেয়ার প্রস্তাবও বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন আছে। বিকল্প কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে প্রায় ৩৩ হাজার জেলেকে ১০ হাজার টাকামূল্যের বিকল্প উপকরণও সরবরাহ করা হয়েছে।
এর আগে, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ-২০১৬ বাস্তবায়নের জন্য আজ মৎস্যভবন থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি জিরো পয়েন্টে এসে শেষ হয়। আগামীকাল লক্ষ্মীপুর উপজেলার রামগতিতে উদ্বোধন অনুষ্ঠানসহ মন্ত্রীর নেতৃত্বে নৌর‌্যালি অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য