কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি-331342 | জাতীয় | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


সংসদীয় গণতন্ত্র সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির উদ্যোগ

কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের রোড শো শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক    

২ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২৫



কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের রোড শো শুরু

সংসদ ও সংসদীয় গণতন্ত্র সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি করতে রোড শো  শুরু করেছে কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশন (সিপিএ)। আজ  বুধবার সকালে জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর প্লাজায় এ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপারসন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। রোড শো বাংলাদেশের পাশাপাশি সিপিএভুক্ত অন্য  দেশগুলোতেও চলবে।

কর্মসূচির উদ্বোধন শেষে জাতীয় সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে স্পিকার বলেন, "যুব সমাজকে গণতন্ত্র চর্চায় উদ্বুদ্ধ করতে সিপিএ প্রথমবারের মতো রোড শো কর্মসূচি নিয়েছে, বাংলাদেশেই যার উদ্বোধন হলো। প্রথম দিনের কর্মসূচিতে ১৫০ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। এ কর্মসূচি সংসদীয় কার্যক্রম ও গণতন্ত্র বিষয়ে যুব সমাজকে সচেতন ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে সহায়তা করবে।"   

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের স্কুল শিক্ষার্থীদের ওপর পরিচালিত এক জরিপের তথ্য উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, "যুব সমাজের মাত্র ২৩ শতাংশ সঠিকভাবে তিনটি কমনওয়েলথভুক্ত দেশের নাম বলতে পেরেছে। তরুণ প্রজন্ম যারা স্কুল, কলেজে অধ্যয়নরত, তারা সঠিকভাবে কমনওয়েথ সম্পর্কে এবং নিজ দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানে না।" এ অবস্থায় সিপিএ রোড শো করে তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে যুব সমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। তিনি এ বিষয়ে কমনওয়েলথভুক্ত ১৮০টি পার্লামেন্টের ১৭ হাজার আইন প্রণেতাকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, বিএএফ শাহীন কলেজ, শেরে বাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও শেরে বাংলা নগর উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। তারা কিছু মৌলিক বিষয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করে। বিশেষ করে সংবিধান, সংসদ ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো পাঠ্যবইয়ে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানান। দাবিগুলো নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলার প্রতিশ্রুতি দেন স্পিকার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের হুইপ মো. শহিদুজ্জামান সরকার, আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, সংসদ সদস্য অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ ও সাগুফতা ইয়াছমিন এবং সংসদ সচিব ড. মো. আবদুর রব হাওলাদার উপস্থিত ছিলেন।
                                         

মন্তব্য