সচেতনতা বৃদ্ধিতে সিপিএ রোড শো শুরু-331259 | জাতীয় | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


সচেতনতা বৃদ্ধিতে সিপিএ রোড শো শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ মার্চ, ২০১৬ ১২:৫৫



সচেতনতা বৃদ্ধিতে সিপিএ রোড শো শুরু

যুব সমাজকে সংসদ ও গণতন্ত্র বিষয়ে সচেতন করে তুলতে প্রথমবারের মতো কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশন (সিপিএ) রোড শো কর্মসূচি শুরু হয়েছে। আজ বুধবার সকালে সিপিএ চেয়ারপার্সন ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সিপিএ রোড শোর কার্যক্রম শুরু করেন। তিনি ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, বিএএফ শাহীন কলেজ, শেরেবাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেরেবাংলা নগর উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সংসদ ভবন পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান।
 
রোড শোর উদ্বোধনকালে সিপিএ চেয়ারপার্সন বলেন, সিপিএ যুব সমাজকে একই মঞ্চে একীভূত করে তাদের সামনে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু তুলে ধরতে চায়, যা তাদেরকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে সহায়তা করবে। তিনি বলেন, সিপিএ হলো বিশ্বের ১৮০টি পার্লামেন্টের একটি অনন্য নেটওয়ার্ক এবং এই রোড শো যুব সমাজকে গণতন্ত্র চর্চা উদ্বুদ্ধ করবে। দুপুরে রোড শোর বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরতে সংসদের মিডিয়া সেন্টারে  প্রেস ব্রিফিং করবেন স্পিকার।
 
সিপিএভুক্ত ৯টি আঞ্চলিক পর্যায়ের দেশগুলোর স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের এ কর্মসূচিতে সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করা হবে। এ রোড শোর মাধ্যমে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর যুব সমাজ তাদের নিজ সমাজ ও গণতন্ত্র সম্পর্কে অবহিত হওয়া এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যদের কাছাকাছি যাবার সুযোগ পাবে। একই সঙ্গে তারা সিপিএর কার্যক্রম এবং কমনওয়েলথ বিষয়ে জানতে পারবে।
 
সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর পরিচালিত এক জরিপে দেখা যায়, যুব সমাজের মাত্র ২৩ শতাংশ সঠিকভাবে ৩টি কমনওয়েলথভুক্ত দেশের নাম বলতে পেরেছে। তাদের শতকরা ৫০ জন বলেছে স্কুল পর্যায়ে কমনওয়েলথ বিষয়ে তাদেরকে কিছু শেখানো হয়নি। এ অবস্থায় সিপিএ রোড শো’ করে তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে যুব সমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
 
কমনওয়েলথভুক্ত ৫৩টি সদস্য দেশের মোট জনসংখ্যা ২০০ কোটির (দুই বিলিয়ন) বেশি। যার মধ্যে ৬০ শতাংশের বয়স ৩০ বছরের নিচে। সিপিএ রোড শো’র অর্থ হলো যুব সমাজকে সিপিএ’র কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত করা এবং গণতন্ত্র  সম্পর্কে তাদের শিক্ষত করে গড়ে তোলা।

 

মন্তব্য