kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভাইবোনের শরীরে আঘাতের চিহ্ন : চিকিৎসক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৩২



ভাইবোনের শরীরে আঘাতের চিহ্ন : চিকিৎসক

রামপুরার বনশ্রীতে ইসরাত জাহান অরুনী (১৪) ও আলভী আমান (৬) নামের দুই ভাইবোনের মৃত্যু খাবারের বিষক্রিয়ায় হয়েছে বলে প্রাথমকিভাবে ধারণা করা হলেও ময়নাতদন্তের রিপোর্টে নতুন রহস্যের জন্ম দিয়েছে। তাদের গলায় আঘাতের চিহ্ন ও চোখে রক্ত জমাট বাঁধার নমুনা পাওয়া গেছে।

এতে ধারণা করা হচ্ছে তাদের শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এখন ভিসেরা রিপোর্ট ও খাদ্যের নমুনা পরীক্ষা করে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
 
আজ মঙ্গলবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক ডা. প্রদীপ কুমার বিশ্বাস বলেছেন, দুজনের গলায় সামান্য চিহ্ন রয়েছে। এ ছাড়া চোখে রক্ত জমাট বাঁধা অবস্থায় দেখা গেছে। তবে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে কি না তা এখনো নিশ্চিত নয়। তিনি বলেন, নিহতদের খাদ্যনালী থেকে কিছু খাবারের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। ভিসেরা রিপোর্ট ও সংগ্রহ করা খাবারের নমুনার রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। সোমবার রাত ৮টার দিকে বনশ্রী আবাসিক এলাকা থেকে অরুনী ও আলভীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
 
পারিবারিক সূত্র জানায়, বাবা, মা, ইসরাত ও তার ছোট ভাই রবিবার রাতে রামপুরা বনশ্রীর ক্যান্ট চাইনিজ রেস্টুরেন্টে রাতের খাবর খান। এ সময় কিছু খাবার বেঁচে যাওয়ায় তা পার্সেল করে বাসায় নিয়ে আসে ইসরাত। সেই খাবার রাতে ফ্রিজে রেখে দেওয়া হয়। সোমবার দুপুরে ফ্রিজ থেকে ওই খাবার বের করে ইসরাত ও আমান খায়। দুপুরে তারা ঘুমিয়ে পড়ে।

সন্ধ্যার দিকে তারা ঘুম থেকে না উঠলে, পরিবারের সদস্যরা ডাকাডাকি করে। তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। সে সময় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, খাবারের বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হতে পারে।

 


মন্তব্য