kalerkantho


'বিশ্বাস করুন, আজ একটুও কষ্ট হয়নি হাঁটতে...'

সত্যজিৎ কাঞ্জিলাল   

৩০ জুলাই, ২০১৮ ১৮:২৭



'বিশ্বাস করুন, আজ একটুও কষ্ট হয়নি হাঁটতে...'

'আজ বহু বছর পরে বসুন্ধরা আবাসিক থেকে পায়ে হেঁটে, রিকশায় চড়ে মিরপুর ফিরলাম। বিশ্বাস করেন, একটুও কষ্ট হয়নি আমার। খুব ভালো লেগেছে বরং। ওদের সাথে পথে না নামলেও পাশে পাশে হাঁটলাম না হয় কিছুক্ষণ। ছাত্রদের ন্যায্য দাবি আদায়ের জন্য যে কোন কষ্ট করতে আমরা পারব।'

আজ সোমবার রাজধানীতে পথ চলার অভিজ্ঞতা একজন সিনিয়র সাংবাদিক সোশ্যাল সাইটে এভাবেই ব্যক্ত করেছেন। সেই সকাল থেকে ছেলে-মেয়েগুলো পথে নেমেছে। কেন নেমেছে? ওদের দুজন বন্ধুকে গতকাল রবিবার বাসচাপা দিয়ে খুন করেছে একজন ড্রাইভার। আরও কয়েকজন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। বিক্ষুব্ধ ছেলেমেয়েগুলো পথে নেমেছে এর বিচার দাবিতে। বিচার? সে তো নিভৃতে কাঁদে প্রতিটি সড়ক দুর্ঘটনার পর!

সহকর্মী ইমরোজ বিন মশিউর ৮ কিলোমিটার হেঁটে অফিসে এসেছেন। সোশ্যাল সাইটে তিনি লিখেছেন, 'বাংলাদেশ নামের এই অসম্ভব দস্যুতাপ্রবণ ও বিচারহীনতার দেশে এই ছেলেমেয়েরা তাদের সহপাঠীদের 'হত্যা'র বিচার চাইছেন......স্লোগান দিচ্ছেন : উই ওয়ান্ট জাস্টিস.....কী ভীষণ বোকা ওরা, তাই না?'

সহকর্মীর স্যাটায়ারধর্মী স্ট্যাটাসটির মর্ম অনুধাবন করতে ভুল হয় না। অনেক কষ্ট, অনেক বেদনা, অনেক ক্ষোভ জমে রয়েছে তার স্ট্যাটাসে। সত্যিই তো, 'বোকা' ছেলেমেয়েগুলো কার কাছে বিচার চাইছে? অফিসে আসার পথে ছেলেমেয়েগুলো গাড়ি আটকে দিচ্ছিল। সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ছেড়ে দিয়ে ওরা বলছিল, 'আঙ্কেল, আমাদের কথাগুলা একটু লেইখেন...।'

ওদের এই আবেগ আমাদের ছুঁয়ে যায়। ওরা সহপাঠী হত্যার বিচার দাবি করছে। কলেজের ছোট ছোট ছেলে-মেয়ে ওরা। কার কাছে চাইবে বিচার? কে ওদের কথা শুনবে? এদেশে তো কোনো বিচার হয় না! এখন পর্যন্ত সড়ক দুর্ঘটনার দায়ে কোনো চালকের তো বিচার হয়নি। ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ এসেছে বহুবার। এখন পর্যন্ত তো একটি ঘটনার ভিক্টিম পরিবারকেও ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়নি! মিডিয়ার সামনে তাই ওদের এমন অনুরোধ, অন্তত তাদের কান্নার গল্পগুলো যেন ছাপানো হয়।

মিডিয়াকর্মী হিসেবে আমরা কান্নার গল্পগুলো, প্রতিবাদের গল্পগুলো ছাপিয়ে যাই। কি-বোর্ডে লেখাগুলো টাইপ করতে করতে কখনও চোখের কোনায় জমা হয় অশ্রু। এদেশের প্রতিটি মানুষ চায় নিরাপদ সড়ক। এদেশের প্রতিটি মানুষ চায়, যে ড্রাইভারটি আমাদের বহন করে নিয়ে যাচ্ছে সে যেন নেশাখোর না হয়। কোনো দুর্ঘটনা ঘটালে চালকদের যেন বিচার হয়।

দুর্ভাগ্য, এদেশে একের পর এক মানুষ খুন করে চলা নেশাগ্রস্ত চালকদের পাশে দাঁড়ানোর মানুষ আছে; কিন্তু সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর কেউ নেই!



মন্তব্য