kalerkantho


বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের গোলরক্ষকের খোলা চিঠি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ জুলাই, ২০১৮ ২০:৩৬



বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের গোলরক্ষকের খোলা চিঠি

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী পতেঙ্গা এলাকার সম্মানিত এলাকাবাসীর সকল মুরুব্বী ভাই বন্ধু প্রত্যেকের কাছে আমার এলাকা তথা পতেঙ্গার কিছু সমসাময়িক সমস্যার সম্পর্কে আমার ব্যক্তিগত কিছু মতামত আপনাদের কাছে শেয়ার করলাম আপনাদের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ আমার কথাগুলো আপনারা আপনাদের সুন্দর মন-মানসিকতা দিয়ে বিবেচনা করবেন, আমি একজন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের খেলোয়াড় এবং বাংলাদেশের সচেতন নাগরিক হিসেবে আমার কিছু কথা আপনাদের সাথে শেয়ার করা খুবই জরুরি।

যেমন আমাদের অত্র এলাকা তথা পতেঙ্গার যারা দায়িত্বপ্রাপ্ত জনপ্রতিনিধি রয়েছে সকলের কাছে আমার অনুরোধ রইল, আপনারা একটু খেয়াল করলে দেখবেন, পতেঙ্গার যুব সমাজ এবং সামাজিক ব্যবস্থার পরিস্থিতি খুবই খারাপ তাই আপনাদের সহযোগিতায় সুন্দর সমাজ গঠনের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম আমাদের শুরু করা দরকার, যেমন সামাজিক কিছু কার্যক্রম পড়ালেখা, খেলাধুলা, পাশাপাশি আমাদের ছেলেমেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করা, আমাদের সন্তানদের পড়ালেখা করার জন্য উপযুক্ত শিক্ষা ব্যবস্থা থাকলেও সামাজিক শিক্ষা ও খেলাধুলার জন্য উপযুক্ত কোনও মাঠের ব্যবস্থা নাই।

জাতীয় দলের সাথে গোলরক্ষক সোহেল

যার পরিপেক্ষিতে আমাদের যুবক ভাইয়েরা বিভিন্ন নেশায় নেশাগ্রস্ত হয়ে ভবিষ্যতে ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, আমি একটা জিনিস লক্ষ করলাম, পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় এর খেলার মাঠটি খেলার উপযুক্ত নয় এর একমাত্র কারণ আমাদের সমাজের কিছু দায়িত্বপ্রাপ্ত মুরব্বিদের অবহেলা আমি আশা করব পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় এর নবগঠিত কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি হাজী সোলাইমান সাহেব এবং পরিচালনা কমিটির সকল সদস্য এবং পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় এর সকল ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবক এবং সকল এলাকাবাসীর সহযোগিতায় খেলার মাঠটি খেলার উপযুক্ত করার জন্য সার্বিক সহযোগিতা পাব।

পরিশেষে আমি পতেঙ্গার সম্মানিত কাউন্সিলর জনাব হাজী জয়নাল আবেদীন এবং সম্মানিত মহিলা কাউন্সিলর শাহানুর বেগম এবং অত্র এলাকার যে সকল ক্রীড়ামোদী রয়েছে সকলের কাছে জোর গলায় অনুরোধ রাখব পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় খেলার মাঠটি আমাদের এলাকার সকলের সম্পদ এটি যাতে ব্যবসায়িক উদ্যেগে ব্যবহিত না হয়ে খেলাধুলার জন্য সঠিকভাবে ব্যবহৃত হয়,আপনারা একটা জিনিস লক্ষ করলে দেখবেন কিছুদিন পরপর পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠটি বিভিন্ন অনুষ্ঠান, মেলা, গরুর বাজার, এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করে মাঠের সুন্দর অবকাঠামো যা রয়েছে তা নষ্ট করে ফেলে যার ফলে পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠটি খেলার অনুপযোগী হয়ে পড়ে

পরিশেষে আমার এই পোস্টটি ব্যবসায়িক দৃষ্টিকোণ এবং রাজনৈতিক কোনো দৃষ্টিকোণ থেকে না দেখার অনুরোধ রইল, আমি পতেঙ্গার জনসাধারণের কাছে সহযোগিতা কামনা করছি, আসসালামু আলাইকুম ওরাহমাতুল্লাহ।

শহীদুল ইউসুফ সোহেল, গোলরক্ষক; বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল



মন্তব্য