kalerkantho


বেঁচে থাকার নিরন্তন যুদ্ধ ওদের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩০ এপ্রিল, ২০১৭ ২০:৫৩



বেঁচে থাকার নিরন্তন যুদ্ধ ওদের

পরিশ্রম আর প্রখর রৌদ্রে মহিলা দুটির চেহারা ছিল বিবর্ণ। মাথা নুইয়ে কাজ করার সময় রক্ত জবার মতো লাল চোখ দুটো যেন বের হয়ে আসছিলো।

মাথা ও শরীর জুড়ে ছিল ধানের চিটা ও ধুলোবালি। ঘামে ভেজা শরীর নিয়ে আমার দিকে বড় অপরাধী হয়েই বল্লো বাপু, খেটে খায়, চুরি তো করি না।  

ওদের ধারণা ছিল আমি হয়তো এই উচ্ছিষ্ট বিচুলি আর পোয়াল পালার মালিক। যদি বকা দিই। কিন্তু তার আগেই তো কৃষক ধান ঝাড়াই করে নিয়ে গেছে সব। রাস্তার পাশে পড়ে থাকা উচ্ছিষ্ট বিচুলি আর পোয়াল পালার নিচে ধান খুঁজে তা সংগ্রহ করছিলো বাগদি সম্প্রদায়ের অভাবী দুই মহিলা। ঝিনাইদহ সদরের বোড়াই এনায়েতপুর গ্রামে তাদের বাড়ি।  

চুয়াডাঙ্গার বদরগঞ্জ বাজার ধরে যখন আমি জীবনা গ্রামে ঢুকি তখন তাদের এই ধান সংগ্রহ করার দৃশ্য চোখে পড়ে। তাদের এই নিরন্তন যুদ্ধ কেবলই ক্ষুধা নিবারণের জন্য।

সারাদিন মাঠঘাট চষে দশ কেজি ধান তাদের কাছে কতই না মহামুল্যবান!! অথচ আমরা কত বেহিসেবি অপচয়কারী! কত সম্পদ বিনষ্ট করে ফেলছি নালা নর্দমায়!

ঝিনাইদহের সাংবাদিক আসিফ কাজলের ফেসবুক পোস্ট থেকে


মন্তব্য