kalerkantho


'আজও বিস্ময়ে ভাবি কোথায় তারা শিখেন, কে তাদের শেখান'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ এপ্রিল, ২০১৭ ২১:৩০



'আজও বিস্ময়ে ভাবি কোথায় তারা শিখেন, কে তাদের শেখান'

ছোট বেলায় গ্রামের মানুষকে বলতে শুনেছি, আমরাও বলেছি “ইংরেজি বাজনা”। ছোটবেলার সেই ইংরেজি বাজনা আজও আছে।

তবে এখন আর কেউ ইংরেজিবাজনার দল বলে না, সবাই ব্যান্ডপার্টি বলে।  

বিয়ে বাড়ি, সুন্নতে খাৎনা, উৎসব কেন্দ্রিক মিছিল, র‌্যালির জন্য আজও এদের কদর আছে। চাহিদা কমলেও এখনও এই মানুষেরা খণ্ডকালীণ পেশা হিসেবে ধরে রেখেছেন। নিত্য অনটনে জীবন কাটে আনন্দের প্রেরণা জাগানো এই মানুষেদের।

আমি ছোটবেলায় ভাবতাম এরা ভিনদেশি এসব বাদ্যযন্ত্রে কেমন করে সুর তোলেন। কোথায় তারা শিখেন, কার কাছে শিখেন, কেমন করে শিখে নেন।

আমি আজও বিস্ময়ে ভাবি কোথায় তারা শিখেন, কে তাদের শেখান।

সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, আনসারদের বাদকদলের না হয় প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার ব্যবস্থা আছে, প্রশিক্ষক আছে কিন্তু গ্রাম শহরে আনন্দ বিলিয়ে চলা এই “ইংরেজিবাজনার” শিল্পীদের কিছুই নেই। তবু তারা সুর তুলছেন, শোভাযাত্রা, মিছিলকে করছেন প্রাণবন্ত, উজ্জীবিত।

- সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু, গণমাধ্যমকর্মী, মানিকগঞ্জ


মন্তব্য