kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

ফয়েজ আহমদ

সাংবাদিক, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ফয়েজ আহমদের জন্ম মুন্সীগঞ্জে ১৯২৮ সালের ২ মে। তাঁর বাবার নাম গোলাম মোস্তফা চৌধুরী ও মা আরজুদা বানু। সাহিত্যের প্রতি দুর্বার টানে ১৯৪৪ সালে তিনি কলকাতার সওগাত অফিসে হাজির হন এবং পরিচয় হয় বিখ্যাত দুই কবি আহসান হাবীব ও হাবীবুর রহমানের সঙ্গে। তাঁরা তাঁকে লেখার জন্য উৎসাহিত করেন। দেশভাগের পর পাকিস্তান সাহিত্য সংসদের প্রথম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তিনি ঢাকায় সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল গড়ে তোলার চেষ্টা করেন। ১৯৫৪ সালে ঢাকার কার্জন হলে সংসদের উদ্যোগে তিনি বাংলা ভাষা ও সাহিত্য সম্মেলনের আয়োজন করেন। এতে কলকাতা থেকে বহু বিশিষ্ট কবি-সাহিত্যিক, গায়ক-গায়িকা অংশগ্রহণ করেন। তিনি ইত্তেফাক, সংবাদ, আজাদ ও পরবর্তী সময়ে পূর্বদেশে চিফ রিপোর্টার ছিলেন। ১৯৫০ সালে হুল্লোড় ও ১৯৭১ সালে স্বরাজ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। ১৯৬৬ সালে তাঁর নেতৃত্বে পিকিং রেডিওতে বাংলা ভাষায় অনুষ্ঠান প্রচার শুরু হয়। দেশভাগের পর তিনি কমিউনিস্ট পার্টিতে একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে যোগ দেন। আইয়ুব খানের আমলে তিনি চার বছর কারাবন্দি ছিলেন। সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। তিনি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধেও তিনি সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। তিনি প্রধানত শিশু-কিশোরদের জন্য ছড়া-কবিতা লিখেছেন। ‘মধ্যরাতের অশ্বারোহী’, ‘সত্যবাবু মারা গেছেন’ তাঁর বিখ্যাত গ্রন্থ। বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একুশে পদকসহ নানা পুরস্কার লাভ করেছেন তিনি। ২০১২ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি তিনি মারা যান।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]

 



মন্তব্য