kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

মোহাম্মদ ওয়াজেদ আলী

সাংবাদিক ও সাহিত্যিক মোহাম্মদ ওয়াজেদ আলীর জন্ম ১২ সেপ্টেম্বর ১৮৯৬ সালে সাতক্ষীরা জেলায়। তাঁর বাবা মুনশি মোহাম্মদ ইব্রাহিম ছিলেন পল্লীচিকিৎসক। তাঁর ডাক্তারখানায় সংবাদপত্র পাঠ ও নানা বিষয়ে বিতর্ক চলত। এসব বিষয় কিশোর ওয়াজেদকে গভীরভাবে প্রভাবিত করেছিল। এ থেকেই ভবিষ্যৎ জীবনে সাংবাদিক হওয়ার স্বপ্ন তাঁর মনে দানা বাঁধে। তাঁর শিক্ষাজীবন শুরু হয় বাঁশদহের মধ্য ইংরেজি বিদ্যালয়ে। স্থানীয় বাবুলিয়া উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয় থেকে বৃত্তিসহ এন্ট্রান্স পাস করার পর তিনি কলকাতার বঙ্গবাসী কলেজে ভর্তি হন। কিন্তু মওলানা আকরম খাঁর প্রভাবে রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ে তিনি পরীক্ষার আগেই কলেজ ত্যাগ করেন এবং ব্রিটিশবিরোধী অসহযোগ আন্দোলনে যোগ দেন। পরে তিনি সাংবাদিকতায় চলে আসেন। ১৯২০ থেকে ১৯৩৫ সাল পর্যন্ত তিনি কলকাতায় মুসলিম মালিকানাধীন বিভিন্ন পত্রিকায় কাজ করেন। বিশেষ করে মোহাম্মদী, নবযুগ, সেবক, বঙ্গীয় মুসলমান সাহিত্য পত্রিকা, দ্য মুসলমান, খাদেম, সওগাত, সহচর, বুলবুল ও সাম্যবাদী পত্রিকার নানা বিভাগে কাজ করেন। বিশ শতকের মধ্যভাগে প্রাঞ্জল ভাষায় প্রবন্ধ রচনা করে যাঁরা খ্যাতি অর্জন করেছিলেন, তিনি ছিলেন তাঁদের অন্যতম। দুই শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ লিখলেও জীবৎকালে তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থসংখ্যা আটটি। সরকারি চাকরি পরিত্যাগ করে তিনি সাংবাদিকতা ও সাহিত্যচর্চার মাধ্যমে সমাজসেবাকে জীবনের ব্রত হিসেবে গ্রহণ করেন। তিনি মুসলিম সমাজের নানা দোষত্রুটি, নতুন রাজনৈতিক পটভূমিতে সমাজ ও জীবন বিকাশের ধারা এবং ভাষা-সাহিত্যের গতিপ্রকৃতি সম্পর্কে সমকালীন পত্রপত্রিকায় বহু মূল্যবান প্রবন্ধ রচনা করেন। ১৯৫৪ সালের ৮ নভেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]

 

 

 



মন্তব্য