kalerkantho

মানুষ ভাবুন, নারী কিংবা পুরুষ নয়

৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় সংসদের স্পিকার, সাবেক বিরোধীদলীয় নেত্রী এবং সংসদের বাইরে একটি রাজনৈতিক দলের নেত্রী সবাই নারী। বাংলাদেশের নারীরা বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। নারীরা কর্মক্ষেত্রে অনেক পরিশ্রম করছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দিচ্ছে। সব জায়গায় সরব উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। ক্ষেত্রবিশেষে পুরুষের চেয়ে নারী ভালো বাজার করতে পারে। কর্মক্ষেত্রে নারীকে আমি পুরুষের চেয়ে এগিয়ে রাখব। কেননা, তারা ঘর সামলে বাইরে কাজ করছে। কৃষিবিদ, ডাক্তার, প্রকৌশলী সব পেশায় পুরুষের সঙ্গে সমানতালে এগিয়ে যাচ্ছে। তথ্য মতে, ২০০৯ সালে কৃষিশিক্ষায় নারীর অংশগ্রহণ ছিল ৩০ শতাংশ। বর্তমানে কৃষিশিক্ষায় নারীর উপস্থিতি ৪৪ শতাংশ। আমরা ধরে নিই যে, কোনো নারী কাজ করলে তা শতভাগ সফল হবে না এবং কাজগুলো নারী না করে কোনো পুরুষ করলে আরো ভালো হতো। ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে হয়তো এই ধারণা মিলেও যেতে পারে, অর্থাৎ পুরুষ করলে কাজটি আরো ভালো হতো। প্রতিকূল পরিবেশে নারীকে কাজ করতে হচ্ছে। কর্মক্ষেত্রে তারা নানাভাবে যৌন নির্যাতনসহ মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। নারীকে নারী না ভেবে যখন শুধু মানুষ ভাববে, তখনই তারা কর্মদক্ষতার পুরোটা দিতে পারবে।

মাহমুদুল হাসান সোহাগ

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

মন্তব্য