kalerkantho

আগাম প্রস্তুতি থাকতে হবে

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে পূর্ব সতর্কতা ও সচেতনতা জরুরি। আগে থেকেই দরকার অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে সবার দায়িত্বশীল ভূমিকা। গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারে সতর্কতা জরুরি। বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ব্যবহারে অধিক সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। কোন কোন স্থান অগ্নিকাণ্ডের জন্য বেশি ঝুঁকিপূর্ণ তা নিরূপণ করে বা তালিকা করে সরকারি উদ্যোগে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া জরুরি। কেউ যেন রাজনৈতিক শক্তি ও আর্থিক শক্তিকে কাজে লাগিয়ে যত্রতত্র অবৈধ উপায়ে রাসায়নিক ও দাহ্য পদার্থ গুদামজাত না করে তার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। আগুন নেভানো কৌশল সবার জানা প্রয়োজন, কিভাবে অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধ সম্ভব সেই কৌশল সবার কাছে পৌঁছে দিতে হবে। কোনো অবস্থায়ই ঘর ওয়্যারিংয়ে খারাপ মানের তার, সুইচ ও বাতি ব্যবহার করা যাবে না। দাহ্য পদার্থ ব্যবহারে বেশি সতর্কতা জরুরি। বাসাবাড়িতে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ অপসারণ করতে হবে। অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে জনসচেতনতা জরুরি। অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে সব মহলকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা যাদের অসচেতনতার কারণে ঘটবে তাদের কোনো রকম ছাড় না দিয়ে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে সবার আগাম প্রস্তুতি নিতে হবে। অগ্নিকাণ্ড একদিকে যেমন প্রাণহানির ঘটনা ঘটায়, তেমনি বহু সম্পদ বিনষ্ট করে। কিভাবে অগ্নিকাণ্ড থেকে রেহাই সম্ভব তার জন্য সবাইকে আগাম সতর্কতা অবলম্বন ও সচেতন হতে হবে।

তাইফুর রহমান মুন্না

কাছিকাটা, মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট।

মন্তব্য