kalerkantho

আবাসিক এলাকা নিরাপদ হোক

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



নিমতলীর ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা পেয়ে দেশবাসী আশ্বস্ত হয়েছিল যে এমন করুণ পরিণতি আর ঘটবে না। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পূরণ হয়নি, এর চেয়ে দুঃখ আর কী হতে পারে? দায়িত্বপ্রাপ্তরা হাত গুটিয়ে বসে থাকে। তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় আটকে আছে বিভিন্ন প্রকল্প। এই প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন একান্ত জরুরি। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধে গৃহীত প্রকল্প প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে সরাসরি মনিটরিং করা দরকার। রাসায়নিক কারখানার অব্যবস্থাপনাও দূর করা দরকার। এমন অমানবিক ঘটনা বন্ধে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে কঠোর থেকে কঠোর হতে হবে। কর্মসূচি বাস্তবায়নে অবিচল থাকতে হবে। রাসায়নিক কারখানা ও গুদামগুলো অবশ্যই কালবিলম্ব না করে নিমতলী ও চকবাজার থেকে গুটিয়ে ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জ অথবা সাভারে স্থানান্তর করতে হবে। গড়ে তুলতে হবে পরিকল্পিত রাসায়নিক জোন। রাসায়নিক দ্রব্যের ব্যবহারে ব্যবসায়ী নিয়মনীতি মানতে হবে। আশ্বাসের পুনরাবৃত্তি সংশ্লিষ্টরা আর চায় না, বাস্তবায়ন চায় গৃহীত পদক্ষেপের।

মুহা. আব্দুল হান্নান

মানপুর, লাখাই, হবিগঞ্জ।

মন্তব্য