kalerkantho


পদ্ধতি না মানার দোহাই কেন

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ইভিএম ভোট পদ্ধতির ব্যবহার নিয়ে এখনো ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা হয়নি। বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখন না মানার সংস্কৃতি বেশি মাত্রায় ক্রিয়াশীল। এক দল কিছু একটা করতে চাইলে অন্য দল বুঝে না বুঝে সেটার বিরোধিতা করবে। নির্বাচনব্যবস্থায় প্রযুক্তির ব্যবহার এখন সময়ের দাবি। ইভিএম পদ্ধতির অনেক উপযোগিতা রয়েছে। নির্বাচনব্যবস্থায় এটি যুক্ত হলে তা একটি আমূল পরিবর্তন আনতে সক্ষম হবে। রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে এ নিয়ে অযথা, অকারণ বিরোধিতার অবস্থান থেকে সরে আসাই হবে উত্তম। সময়ের অভিঘাতে পাল্টে যাচ্ছে সব কিছু। নতুন কিছুকে গ্রহণ করার জন্য আধুনিক চিন্তাচেতনার অধিকারী হতে হয়। কোনো পদ্ধতি ব্যবহার করার আগেই এ নিয়ে অযথাই ভয় বা আশঙ্কা প্রকাশ কোনো যুক্তিসংগত নয়। কথায় বলে, ‘যন্ত্র থাকলে যন্ত্রণাও থাকবে’। তাই বলে কি আমরা যন্ত্র ব্যবহার করব না? ইভিএম পদ্ধতির ক্ষেত্রেও তাই। সুতরাং এ নিয়ে শঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। অতীতে ভোটের বাক্স, ব্যালটপেপার ছিনতাইয়ের ঘটনা কি ঘটেনি? সদিচ্ছার ওপরই সব কিছু নির্ভর করে। এখানে পদ্ধতি কোনো বিষয় নয়। কোনো নির্বাচনের ফলাফলই কি পরাজিত দল ভালোভাবে নিয়েছে? তাহলে পদ্ধতির দোহাই কেন? ইভিএম পদ্ধতির অনেক উপযোগিতা রয়েছে। কাজেই রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে এ নিয়ে অযথাই অকারণ বিরোধিতার অবস্থান থেকে সরে আসাই হবে উত্তম।

এস এম রওনক রহমান আনন্দ

বাবুপাড়া, ঈশ্বরদী, পাবনা।



মন্তব্য