kalerkantho


সাড়া জাগানো ভুল

কারানসেবেসের যুদ্ধ

ভুলের মাত্রা মাঝেমধ্যে এতই বেড়ে যায় যে ঘটনা উঠে যায় ইতিহাসের পাতায়। এমন কিছু মহাভুল নিয়েই এই আয়োজন। লিখেছেন ধ্রুব নীল

২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



কারানসেবেসের যুদ্ধ

১৭৮৮ সাল। রুশ-টার্কিশ যুদ্ধের উত্তেজনা চরমে। দফায় দফায় হামলা-পাল্টাহামলার একপর্যায়ে ঘটে গেল যুদ্ধের ইতিহাসে ইয়া বড় এক বোকামির ঘটনা। অটোমান সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে জোট বেঁধেছিল অস্ট্রিয়া ও রাশিয়া। ওই বছরের ১৭ ও ১৮ সেপ্টেম্বর কারানসেবেস (এখনকার রোমানিয়ার একটি শহর) শহরে ঘাঁটি গেড়েছিল প্রায় এক লাখ অস্ট্রিয়ান সেনা। রাত জেগে ক্যাম্প পাহারার দায়িত্ব পড়ে কয়েকজনের ঘাড়ে। পাহারা দেওয়ার সময় জিপসিদের কাছ থেকে গলা পর্যন্ত মদ গেলে অশ্বারোহী কয়েকজন। তারা আবার সাধারণ পদাতিক পাহারাদারদের সঙ্গে মদ ভাগাভাগি করবে না বলে জানায়। এ নিয়ে বেঁধে যায় বচসা। হাতাহাতি থেকে মারামারি, চেঁচামেচি। ভিড়ের মধ্যে কে যেন চিত্কার করে ওঠে—‘তুর্কি তুর্কি!’ সঙ্গে সঙ্গে গুলি ছুড়ে বসে একজন। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা ক্যাম্পে। ঘুটঘুটে অন্ধকার। পরিষ্কার কিছুই দেখা যাচ্ছে না। তার পরও শুরু হয়ে যায় তুমুল গোলাগুলি। দুই দিন পর তুর্কিরা আসে ঠিকই। কিন্তু এসেই তারা অবাক। কারানসেবেসে পড়ে থাকতে দেখে হাজার দশেক আহত ও নিহত অস্ট্রিয়ান সেনা। শহরটা দখলে আনতে মোটেও কষ্ট হয় না তাদের। কারণ রাতভর সহযোদ্ধাদের দিকেই তাক করে গুলি ছুড়েছিল অস্ট্রিয়ানরা।



মন্তব্য