kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আজব সৈকত

সৈকতে বরফের বল

নাবীল অনুসূর্য

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



সৈকতে বরফের বল

বরফের এক দেশে গেছেন। তুষারপাতে মাঠ-ঘাট সব ঢেকে গেছে।

এমন জায়গায় বরফের বল বানিয়ে একে অন্যের গায়ে ছুড়ে মারতে নিশ্চয়ই ভীষণ মজা পাবেন। আর যদি কাছেই থাকে সমুদ্রসৈকত, তাহলে তো দুয়ে মিলে নির্মল বিনোদনের এক দুর্দান্ত প্যাকেজই হয়ে যায়। তার ওপর যদি এমন হয়, বরফের বল কষ্ট করে বানাতেও হবে না, আপনা-আপনিই সাগরে ভেসে ভেসে চলে আসবে, তাহলে তো কথাই নেই! এমন ব্যবস্থাও আছে এক সৈকতে। নাম ‘স্ট্রুমি বিচ’।

বাল্টিক সাগরের অবস্থান ইউরোপের উত্তরে। এই সাগরের সঙ্গে যোগ আছে বেশ কয়েকটি দেশের। তবে বাল্টিক রাষ্ট্র বলতে মূলত তিনটি দেশকেই বোঝানো হয়— লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া আর এস্তোনিয়া। এই এস্তোনিয়ায়ই স্ট্রুমি নামের সৈকতটি অবস্থিত। এস্তোনিয়া আর ফিনল্যান্ডের মাঝে দুস্তর পারাবার হিসেবে আছে ফিনল্যান্ড উপসাগর। এটা বাল্টিক সাগরেরই উপসাগর। ফিনল্যান্ড উপসাগরেরই সৈকত স্ট্রুমি বিচ। স্ট্রুমি বিচেই আছে প্রাকৃতিক বরফের বলের সেই অদ্ভুত ব্যবস্থা। শীতকালে গেলেই হলো, আর কষ্ট করে বরফের বল বানানো লাগে না। সাগরের ঢেউয়ের সঙ্গে ঝাঁকে ঝাঁকে ভেসে আসে বরফের বল।

প্রাকৃতিক এই বরফের বল তৈরি হতে গেলে, সৈকতের অন্তত দুটি বৈশিষ্ট্য থাকতে হয়। প্রথমত, ওখানে সাগর খুব একটা অশান্ত হলে চলবে না। দ্বিতীয়ত, সাগরতলটাও হতে হবে সমতল। সাগরের তলদেশ যদি কাছাকাছি কোথাও খাড়াভাবে নেমে যায়, তাহলেও চলবে না। আর ওখানকার আবহাওয়া তো যথেষ্ট ঠাণ্ডা হতেই হবে। তবেই সৈকতে বড় বড় বরফের চাঁই তৈরি হবে। একেবারে সাগরের পানির ওপর পর্যন্ত বরফ চলে আসবে। আর সাগরের ঢেউয়ে সেই বরফের চাঁই থেকে বরফ ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে তৈরি হবে প্রাকৃতিক বরফের বল। এ সবই মিলে গেছে বলেই স্ট্রুমি বিচে হাজার হাজার বরফের বল ভেসে ভেসে সৈকতের কিনারে জড়ো হয়ে থাকে।

এমনটা অবশ্য কেবল এই স্ট্রুমি বিচেই ঘটে, তা নয়। ঘটে আমেরিকার লেক মিশিগানেও। আমেরিকা-কানাডা সীমান্তে পাঁচটি বিশাল বিশাল হ্রদ আছে। এগুলোকে একত্রে বলা হয় ‘গ্রেট লেকস’। তারই একটি এই লেক মিশিগান। বাকি চারটি লেক আমেরিকা-কানাডা দুই দেশে পড়লেও, এই লেক পুরোপুরি আমেরিকার ভাগে পড়েছে। এগুলো লেক বা হ্রদ হলে কী হবে, স্বভাব-চরিত্র একেবারেই সমুদ্রের মতো। এগুলো যেমন দৈর্ঘ্যে-প্রস্থে বিশাল, তেমনি গভীরও অনেক। আছে শক্তিশালী স্রোত, এমনকি তীরে সাগরের মতো ঢেউও আসে। কেবল অন্যান্য সাগরের সঙ্গে যোগ নেই বলে, চারপাশ ভূমি দিয়ে ঘেরা বলেই এগুলোকে বাধ্য হয়ে লেক বলতে হয়। আর লেক মিশিগানে কেবল ঢেউ-ই হয় না, প্রতি শীতেই হাজার হাজার বরফের বলও সৃষ্টি হয়। আর সেগুলো ওই স্ট্রুমি বিচের মতোই এসে জড়ো হয়ে থাকে সৈকতের কিনারে। কেবল গিয়ে তুলে নিলেই হলো!


মন্তব্য