kalerkantho

পুরুষের বেশে ছিনতাই করেন এই দুই নারী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ২১:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুরুষের বেশে ছিনতাই করেন এই দুই নারী

এক নারীর পার্স চুরি করে তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে ফেলে দেওয়ার অভিযোগে ভারতের দিল্লির জনকপুরি এলাকা থেকে ৩৩ বছরের এক তরুণী ও তার সহযোগীকে গ্রেপ্তার এরছে পুলিশ। 

পুলিশ বলছে, তাদের চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য ওই তরুণী পুরুষের মতো পোশাক পরে দুষ্কর্ম চালিয়ে যেতেন। অভিযুক্তের নাম রমনজিৎ কৌর। তিনি নাংলোই এলাকার বাসিন্দা। তার সহযোগী রামনিক সিং (২৪) নিহাল বিহারের বাসিন্দা। 

পুলিশ জানিয়েছে, ওই দুই নারী সম্ভবত বান্টি বাবলি গ্যাংয়েরই সদস্য। অভিযুক্তদের কাছ থেকে একটি বাইক একটি স্কুটার এবং ছিনতাই হওয়া পার্স উদ্ধার করা হয়েছে।

দিল্লি পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (পশ্চিম) মনিকা ভরদ্বাজ বলেন, চলতি বছরের ৮ মার্চ ৫৩ বছর বয়সী এক নারী আন্তর্জাতিক নারী দিবসের একটি অনুষ্ঠান উপলক্ষে জনকপুরি গিয়েছিলেন। সেখানে এক জায়গায় দাঁড়িয়ে তিনি ফোনে কথা বলছিলেন। ওই সময় বাইকে চড়ে অজ্ঞাতপরিচয় দুই ব্যক্তি তার পার্সটি টান দেয়। 

তিনি আরো বলেন, ওই মহিলা পার্সটি খুব জোরে চেপে ধরে থাকায় একবারের চেষ্টায় দুষ্কৃতিকারীরা ছিনতাই করতে পারেনি। তখন ছিনতাইকারীরা ওই নারীকে মাটিতে ফেলে টেনেহিঁচড়ে সেটি ছিনতাই করে নিয়ে পালিয়ে যায়।

তদন্তে নেমে পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজের ওপর ভরসা করে। আশপাশের এলাকা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে দেখা যায়, বাইক আরোহীর চেহারার মধ্যে একটা মেয়েলি ভাব রয়েছে।

পরে পুলিশ খতিয়ে দেখে, আগে ছিনতাইয়ে অভিযুক্ত ছিল এমন নারীদের ব্যাপারে। পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পায়, অভিযুক্ত দু'জন জনকপুরি এলাকায় অক্সফোর্ড স্কুলের কাছে বুধবার একজনের সঙ্গে দেখা করতে আসবে। তখনই ফাঁদ পেতে দুই অভিযুক্তকে ধরা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, রমনজিৎ আগেই তেজেন্দর সিং নামে একজনকে বিয়ে করেছিলেন। তিনি আপাতত খুনের অভিযোগে জেলে বন্দি রয়েছেন।

তার পরেই রমনজিতের আলাপ হয় জগজিৎ সিং নামে একজনের সঙ্গে। দু'জনে মিলে ছিনতাইয়ের নানা নতুন পদ্ধতি অবলম্বন করে ছিনতাই শুরু করেন। তখন থেকেই পুরুষের বেশ ধরার চিন্তাভাবনা তাদের মাথায় আসে। 

২০১৪ সালে প্রথম রমনজিৎ একবার গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর তিনি আবার রামনিককে সঙ্গে নিয়ে একই অপরাধের পথে হাঁটা শুরু করেন।

মন্তব্য