kalerkantho


‘স্বর্গে বাবাকে চিঠিটা পৌঁছে দেবে’, ডাকপিয়নের কাছে শিশুর জিজ্ঞাসা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:০৪



‘স্বর্গে বাবাকে চিঠিটা পৌঁছে দেবে’, ডাকপিয়নের কাছে শিশুর জিজ্ঞাসা

বয়স মাত্র সাত বছর। সেই ছেলে ইতোমধ্যেই বাবাকে হারিয়েছে। কিন্তু বাবার সঙ্গে তার যে অনেক কথা এখনো বাকি। সে কারণে চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নেয় ছেলেটি। আঁকাবাঁকা হাতেই মৃত বাবার উদ্দেশ্যে চিঠিও লিখে ফেলে সে।

এর পর পাঠিয়েও দেয় ডাকঘরে। চিঠির উপরে বাবার ঠিকানা হিসেবে লেখা স্বর্গ! আর  তার স্ত্রীর নাম টেরি কোপল্যান্ড, বাড়ি ইংল্যান্ডে।

জানা গেছে, ওই শিশুর বাবা জেমস হাইন্ডম্যান মারা যাওয়ার পর থেকে সাত বছরের সেই ছেলেটি মায়ের কাছেই থাকে। ফেসবুক পোস্টে টেরিই জানিয়েছেন জেসের লেখা এই মর্মস্পর্শী চিঠির কথা।

খামের উপরে লেখা হয়েছে, মিস্টার পোস্টম্যান, আমার বাবার জন্মদিনের জন্য তুমি কি এটা স্বর্গে নিয়ে যেতে পারো?  লেখার পর জেস চিঠিটি তার মা টেরির হাতে তুলে দেয়। তিনি ব্রিটিশ কুরিয়ার সংস্থা ‘রয়্যাল মেল’-এর কাছে পাঠিয়েও দেন।

কিন্তু ঘটনার শেষ এখানেই নয়। টেরিও ছেলের কথা রাখতেই চিঠিটি কুরিয়ার সংস্থায় পাঠিয়েছিলেন, তার বেশি কিছু আশা করেননি। ‘রয়্যাল মেল’ অবশ্য এই চিঠি পেয়ে খুবই মানবিক অবস্থান নেয়। পাল্টা চিঠি লিখে তারা খুদে জেসকে জানায় যে, চিঠিটি তার বাবার কাছে ডেলিভারি করা সম্ভব হয়েছে।

চিঠিতে আরো লেখা হয়, স্বর্গে পৌঁছানোর রাস্তায় তারা এবং মহাজাগতিক বস্তুদের পাশ কাটিয়ে যাওয়াটাই একটা কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল। যা হোক, এ ব্যাপারে নিশ্চিত থেকো চিঠিটি যথাযথ ভাবে পৌঁছেছে।

এর পরে বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে লিখে টেরি বলেন, চিঠিটা ওর বাবার কাছে পৌঁছেছে জেনে, ছেলে যে কী খুশি তা বলে বোঝানো সম্ভব নয়।



মন্তব্য