kalerkantho


ডেলিভারির আগে বুঝতেই পারেননি তিনি গর্ভবতী!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:১৩



ডেলিভারির আগে বুঝতেই পারেননি তিনি গর্ভবতী!

বর্তমানে সন্তানসহ সুখেই আছেন টেরি। ছবি : ইন্টারনেট

পেশায় তিনি চিয়ার লিডার। বিভিন্ন ক্রিকেট বা ফুটবল ম্যাচে তার ডাক পড়ে নাচের জন্য। সেই সঙ্গে ইংল্যান্ডের একটি বারেও কাজ করতেন তিনি। ২১ বছর বয়সী টেরি আন হাইডের সঙ্গে যে ঘটনা ঘটেছে, তা অলৌকিক বললেও কম বলা হবে। গত মার্চ মাসে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেওয়া টেরি ঠিক কবে গর্ভবতী হয়েছিলেন; সেটা নাকি তিনি নিজেই বুঝতে পারেননি! শুধু টেরি নন; তার চারপাশের কেউই টেরির প্রেগন্যান্সির ব্যাপারটা ধরতে পারেননি। 

গর্ভাবস্থায় একটি ড্যান্স ট্রুপের হয়ে সপ্তাহে দুই বার নাচের অনুশীলন করতেন টেরি। আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যেও তাকে সবাই পার্টি-পাগল বলেই জানে। এমন রঙিন জীবন-যাপন করা টেরির দৈনন্দিন রুটিনে একদিন ছেদ পড়ে। গর্ভাবস্থার ৯ মাস অতিক্রম করার পরেই তার প্রসব বেদনা ওঠে। এরপর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর একটি সুস্থ পুত্র সন্তানের জন্ম দেন টেরি।

কিন্তু সন্তান হওয়ার পর নিজেই মেনে নিতে চাননি শিশুটিকে। কারণ গর্ভবতী থাকার কথা কিছুতেই তিনি বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। এমনকি তাকে স্বীকার করে নিতেও অস্বীকার করেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মায়ের কোলে স্থান পায় ছোট্ট জ্যাকব। পরে টেরি জানান যে, দীর্ঘ ৯ মাস তার গর্ভে একটি নতুন প্রাণ থাকলেও সেটা তিনি কখনোই বুঝতে পারেননি। এমনকি কখনো ব্যাথা বা সন্তান হওয়ার কোনো লক্ষণ তিনি অনুভব করেননি। পেটও স্বাভাবিক লাগত।

বর্তমানে নিজের বয়ফ্রেন্ড জ্যাক ও ছেলে জ্যাকবের সঙ্গে সুখেই রয়েছেন টেরি। পুরোপুরি বদলে ফেলেছেন নিজের জীবনযাপনও। ছোট্ট ছেলেকে ঘিরেই তার পুরো পৃথিবী। চাইছেন পরিবারকে আরও বড় করতে। মাতৃত্ব জেগে উঠলে এভাবেই একজন নারীর জীবনযাপন এবং চরিত্রের আমূল পরিবর্তন ঘটে যায়।



মন্তব্য