kalerkantho


বন্ধু দিবসে বাবার ৪৬ লাখ টাকা বিলিয়ে দিয়েছে স্কুলছাত্র

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ আগস্ট, ২০১৮ ২১:২০



বন্ধু দিবসে বাবার ৪৬ লাখ টাকা বিলিয়ে দিয়েছে স্কুলছাত্র

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমের বদৌলতে একটি মেসেজ দিয়ে দায় সারেন অনেকেই। তবে ভারতের মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরের দশম শ্রেণির এক ছাত্র কোনো চেনা পথে হাঁটেননি। বাবার লকার থেকে ৪৬ লাখ টাকা সরিয়ে নিয়ে তা বিলিয়ে দিয়েছেন স্কুল, কোচিং সেন্টার আর পাড়ার বন্ধুদের মধ্যে।

তার মধ্যে স্থানীয় এক দিনমজুরের ছেলেকেই তিনি দিয়েছেন ১৫ লাখ টাকা। আর হোমওয়ার্ক করে দেওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা স্বরূপ এক বন্ধুকে তিনি দিয়েছেন  তিন লাখ টাকা।

বন্ধুরাও সাগ্রহে গ্রহণ করেছে তার আর্থিক উপহার। টাকা পাওয়ার পর এক বন্ধু তা দিয়ে একটি গাড়িও কিনে ফেলেছে বলে জানা গেছে।

ওই ছাত্রের বাবা স্থানীয় প্রোমোটার। কিছুদিন আগেই জমি বিক্রি করে তিনি ৬০ লাখ টাকা পান। সেই টাকাই বাড়ির লকারে রেখে দেন। লকারে টাকা না পেয়ে পুলিশে খবর দেন তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে ছেলের কীর্তি, আর সামনে আসে তার বন্ধুপ্রীতির কথা।

বাবার কাছ থেকে ছেলের বন্ধুর তালিকা নিয়ে জনে জনে খোঁজ নিচ্ছে মধ্যপ্রদেশ পুলিশ। আপাতত ৩৫ জনের নাম জানা গেছে। তবে কাউকেই খালি হাতে ফেরাননি তিনি। আর বন্ধু দিবসের উপহার হিসেবে সবাইকেই টাকা নয়, কাউকে বহুমূল্যবান স্মার্টফোন, কাউকে গয়নাও দিয়েছেন এই স্কুলছাত্র।

আপাতত উপহার পাওয়া বন্ধুদের অভিভাবকদের পাঁচ দিনের মধ্যে টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। এখন পর্যন্তউদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে ১৫ লাখ টাকা।

বন্ধুত্বের উপহার পাওয়ার পর থেকেই নিরুদ্দেশ স্থানীয় দিনমজুরের ছেলে। তার কাছে আছে তিন লাখ টাকা। আর কাকে কত টাকা উপহার দেওয়া হয়েছে, সেই হিসেব নিজেও ভুলে গেছেন এই মহান বন্ধু।



মন্তব্য