kalerkantho


দুর্লভ চিঠি ম্যান্ডেলার, উঠে এলো মর্মস্পর্শী কাহিনী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৮ ২১:২০



দুর্লভ চিঠি ম্যান্ডেলার, উঠে এলো মর্মস্পর্শী কাহিনী

নেলসন ম্যান্ডেলা তাঁর ২৭ বছরের কারাবন্দী জীবনে শতশত চিঠি লিখেছিলেন। যেগুলো থেকে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে তাঁর সংগ্রামের এক হৃদয়বিদারক চিত্র উঠে আসে। এসব চিঠি তিনি লিখেছিলেন তার পরিবার-পরিজন, কারাগারের গভর্নর ও রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তা, কৃর্তপক্ষ এবং নিজের সমর্থকদের উদ্দেশে।

ম্যান্ডেলার ১০০তম জন্মদিবসে তার লেখা এমন ২৫০টি চিঠির সংকলন নিয়ে একটি বই প্রকাশ করা হয়েছে সম্প্রতি। এসব চিঠি থেকে তার ব্যাপারে গভীর অন্তর্দৃষ্টি লাভ করা যাবে। কতটা দৃঢ়তা এবং ধৈর্য্য নিয়ে তিনি নিজ দেশের স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করে গেছেন তারও একটি চিত্র দেখা যাবে।

১৯৬৯ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি তাঁর মেঝ ও ছোট মেয়ের চিঠির উত্তরে একটি চিঠি লিখেছিলেন ম্যান্ডেলা। দুই মেয়ে তাঁকে জিজ্ঞেস করেছিল কবে তিনি বাড়ি ফিরবেন। উত্তরে ম্যান্ডেলা জানান, আমি জানি না আমি কবে ফিরতে পারব। তোমাদের হয়তো মনে আছে ১৯৬৬ সালে লেখা একটি চিঠিতে আমি বলেছিলাম শেতাঙ্গ বিচারকরা বলেছে আমাকে আমৃত্যূ আটকে রাখা উচিত। আসলে ওই বিচারকরাও জানেন না আমি কবে ফিরব।

চিন্তা করো না। আমি সুখি এবং ভালো আছি। আরা আমি এখন আরো শক্তি এবং আশায় পরিপূর্ণ। আমি শুধু তোমাদের জন্যই একটু মনে দু:খ পাই। আমি যখনই একাকীত্ব বোধ করি তখনই তোমাদের ছবি দেখি। যা কারাগারে আমার সামনেই থাকে সবসময়।

এমন আরো ২৪৯টি চিঠির সংকলন করা হয়েছে বইটিতে। কিছু চিঠিতে তিনি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন। আবার কিছু চিঠি আছে যেগুলো তিনি লিখেছিলেন তাঁর সমর্থকদের উদ্দেশে। সমর্থকদেরকে তিনি অনবরত বিদ্যমান পরিস্থিতির পরিবর্তন এবং বর্ণবাদের অবসানে সংগ্রাম করে যাওয়ার অনুপ্রেরণা দিয়ে যেতেন চিঠিগুলোতে।

সূত্র: ইনডিপেনডেন্ট



মন্তব্য