kalerkantho


এবার ‘স্বদেশি’ জিনস নিয়ে আসছেন বাবা রামদেব!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জুন, ২০১৮ ২২:২১



এবার ‘স্বদেশি’ জিনস নিয়ে আসছেন বাবা রামদেব!

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের পরে এবার পোশাকের বাজারও জয় করতে চলেছে ভারতের যোগগুরু রামদেবের ‘স্বদেশি’ কনজ্যুমার প্রোডাক্টস কম্পানি পতঞ্জলি। বাজারে আসছে সংস্থার নিজস্ব ফ্যাশন ব্র্যান্ড ‘পরিধান’।

চলতি বছরের শেষেই আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে আদ্যপান্ত ‘শুদ্ধ ভারতীয় জিনস’, সৌজন্যে ভারতের যোগগুরু রামদেবের পতঞ্জলি আয়ুর্বেদ সংস্থা। সম্প্রতি এক টিভি চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে এই কথা জানিয়েছেন পতঞ্জলির সহ-প্রতিষ্ঠাতা তথা ম্যানেজিং ডিরেক্টর আচার্য বালকৃষ্ণন।

জানা গিয়েছে, পরিধান ব্র্যান্ডের অধীনেই তৈরি হবে ‘ভারতীয়’ জিনস। সংস্থার দাবি, এই পোশাক বিশেষ করে ভারতীয় মহিলাদের পক্ষে অত্যন্ত আরামদায়ক হবে। এছাড়া বেডশিট, যোগা ওয়্যার, স্পোর্টসওয়্যারও তৈরি হবে এই ব্র্যান্ডে। 

বালকৃষ্ণনের দাবি, ভারতীয় ঐতিহ্য ও ভাবধারায় সমৃদ্ধ বস্ত্র তৈরি করবে পতঞ্জলির এই ব্র্যান্ড। পরিধান বিপণনের প্রয়োজনে সারা দেশে একসোরও বেশি শোরুম খোলা হবে। এই বিষয়ে ব্যবস্থাপনার কাজে ইতোমধ্যেই উত্তরপ্রদেশের নয়ডার এক সংস্থাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন। 

লেভিস, পেপে জিনস বা ক্যালভিন ক্লেইন-এর মতো বহুজাতিক জিনস ব্র্যান্ডগুলির সঙ্গে কী ভাবে টক্কর দেবে পরিধান জিনস? বালকৃষ্ণনের দাবি, বিশ্বের ফ্যাশন ট্রেন্ড মেনে তৈরি বহুজাতিক ব্র্যান্ডের চেয়ে সম্পূর্ণ স্বতন্ত্র হবে পরিধান জিনস। তিনি বলেন, মেজাজে ও চেহারায় এই জিনস হবে একেবারে ‘স্বদেশি’। 

বস্তুত বছর দুই আগেই জিনস তৈরি করার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন রামদেব স্বয়ং। ইকনমিক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে বালকৃষ্ণও জানিয়েছিলেন, ‘জিনস মূলত পাশ্তাত্যের মস্তিষ্ক প্রসূত পোশাক। পাশ্চাত্যের পণ্য আমরা পুরোপুরি বয়কট করতে পারি, অথবা তাকে ভারতীয় রূপে ধারণ করতে পারি। জিনসের এমনই জনপ্রিয়তা য়ে তাকে ভারতীয় সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন করা অসম্ভব। স্বদেশি জিনস স্টাইল, ডিজাইন ও কাপড়ের মানে পুরোদস্তুর ভারতীয় হবে।’

এবার সেই ভাবধারা কাজে পরিণত করতে চলেছে পতঞ্জলি আয়ুর্বেদ। নিত্য ব্যবহার্য পণ্যের বাজার জয় করার পরে এবার লি-লেভিস-র‌্যাংলারের মতো ব্র্যান্ডকে চ্যালেঞ্জ জানাতে আসছে পরিধান জিনস।

সূত্র: এই সময়



মন্তব্য