kalerkantho


গলার ভেতরে আটকে গেছে কয়েন, চমক দেখালেন চিকিৎসকরা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ জুন, ২০১৮ ২০:৪৮



গলার ভেতরে আটকে গেছে কয়েন, চমক দেখালেন চিকিৎসকরা!

খেলার ছলে এক টাকার কয়েন গিলে ফেলে এক শিশু। সেই কয়েন খাদ্যনালীতে আটকে যাওয়ায় সঙ্কটজনক অবস্থায় পড়েছিল পাঁচ বছরের শিশু। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসকদের সফল প্রচেষ্টায় বৃহস্পতিবার দুপুরে গলা থেকে বের করা হয় কয়েনটি। আপাতত শিশুটি বিপদমুক্ত। সরকারি হাসপাতালের সফল কর্মকাণ্ডে খুশি শিশুর পরিবারের সদস্যরাও।

পুরাতন মালদহের যাত্রাডাঙার বাসিন্দা হাসিউর রহমান পেশায় রাজমিস্ত্রি। বুধবার বিকেলে বাড়িতে খেলছিল হাসিউরের দুই শিশুসন্তান। পাঁচ বছরের সালমা আফরোজ আর বছর দুয়েকের সালিম রহমান। খেলার ছলেই অসাবধানতাবশত এক টাকার একটি কয়েন গিলে ফেলে সালমা।

সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় চরম শ্বাসকষ্ট। সমস্যা বুঝতে পেরে প্রথমে নিজেরাই গলার ভেতর থেকে কয়েক বের করার চেষ্টা করেন হাসিউর ও তার স্ত্রী ঝথিখা বিবি। কিন্তু এতে বিপদ আরো বেড়ে যায়। আরো গভীরে গিয়ে খাদ্যনালীতে আটকে যায় টাকার কয়েন।

শ্বাসকষ্টের পাশপাশি খাবারও বন্ধ হয়ে যায় শিশুর। তড়িঘড়ি তাকে নিয়ে যাওয়া হয় মৌলপুর ব্লক হাসপাতালে। সেখান থেকে তাকে পাঠানো হয় মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

বুধবার বিকেলে ওই শিশুর গলার এক্সরে করানোর পর এক টাকার কয়েন আটকে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হন চিকিৎসকরা। কিন্তু পেটে খাবার থাকায় জীবনহানির আশঙ্কা ছিল। তাই অস্ত্রোপচারের ঝুঁকি নেওয়া হয়নি।

প্রায় ২০ ঘন্টা পর বৃহস্পতিবারের দুপুরে সফল অস্ত্রোপচার হয় সালমার। চিকিৎসক অতীশ হালদারের নেতৃত্বে পাঁচ জনের চিকিৎসক দল কোনো রকম কাঁটাছেড়া ছাড়াই বিশেষ পদ্ধতিতে গলার ভেতরে পাইপ ঢুকিয়ে বের করে আনা হয় কয়েনটি। মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এই ধরনের অস্ত্রোপচার প্রথম, এমনটাই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।



মন্তব্য