kalerkantho


ক্ষমতা পেয়েই মালয়েশিয়ায় বৈপ্লবিক পরিবর্তনের পথে মাহাথির

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ মে, ২০১৮ ১৩:৫০



ক্ষমতা পেয়েই মালয়েশিয়ায় বৈপ্লবিক পরিবর্তনের পথে মাহাথির

ছবি অনলাইন

আধুনিক মালয়েশিয়ার স্থপতি মাহাথির মোহাম্মদ মালয়েশিয়ার ক্ষমতা থেকে অবসর নেন প্রায় ১৫ বছর আগে। এরপর অবসর জীবনই কাটাচ্ছিলেন। সম্প্রতি মালয়েশিয়া সরকারের ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগের মুখে তিনি ফের দেশটির দুর্নীতি নির্মূল করার সংকল্প করেন। এরপর নির্বাচনে দাঁড়ান এবং জনগণের ভোটে বিজয়ী হয়ে ৯ মে মাহাথির ক্ষমতায় ফেরেন।

১৫ বছর পর ক্ষমতায় ফিরে এসে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন বর্তমানে মালয়েশিয়া ঋণের ভারে জর্জরিত এবং দুর্নীতিতে দেশটির আন্তর্জাতিক বদনাম হয়েছে, যা আগে ছিল না।

মালয়েশিয়ার ক্ষমতায় মাহাথিরের ফেরার সবচেয়ে বড় কারণ ছিল সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে তার ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের দুর্নীতির রাশ টেনে ধরা। নাজিব কোটি কোটি ডলার চুরি করেছেন এবং মালয়েশিয়ার সবচেয়ে বড় অর্থ কেলেঙ্কারি করেছেন এই অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

ক্ষমতায় এসে মাহাথির যেসব পদক্ষেপ নিয়েছেন তার মধ্যে দুর্নীতিবিরোধী নানা পদক্ষেপই সবচেয়ে আলোচিত হয়েছে। মাহাথির বলেছেন, আগের সরকারের আমলে রাজনৈতিক বিবেচনায় যারা নিয়োগ পেয়েছেন এমন ১৭ হাজার আমলা-কর্মচারীকে ছাঁটাই করা হবে। সরকারি জনশক্তিতে চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীর সংখ্যা অতিরিক্ত হয়ে গেছে। চাকরিচ্যুতদের একটি অংশকে যোগ্যতা অনুযায়ী অন্য কাজে নিযুক্ত করা হবে।

এবার দায়িত্ব পেয়ে মন্ত্রিসভার মন্ত্রীদের বেতন ১০ শতাংশ কমিয়ে দিয়েছেন। ১৯৮১ সালেও মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হয়ে প্রথমেই মন্ত্রী আর সরকারের সিনিয়র কর্মকর্তাদের বেতন কর্তন করেছিলেন মাহাথির।

সরকারি কর্মচারীদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেছেন, আইন ভঙ্গ করবেন না। আইন ভাঙলে এমনকি প্রধানমন্ত্রীকেও ছাড় দেবেন না।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ তহবিলের (ওয়ানএমডিবি) অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আছে। কেবল মালয়েশিয়া নয়, যুক্তরাষ্ট্রসহ আরো কয়েকটি দেশ নাজিবের বিরুদ্ধে এ গুরুতর অভিযোগের তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। ওয়ানএমডিবি থেকে নাজিব ৭০ কোটি ডলার নিজের পকেটে পুরেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া অভিযোগ রয়েছে, এ বিনিয়োগ ফান্ড থেকে সাড়ে চার বিলিয়ন ডলার চুরি হয়েছে, যা উদ্ধারের জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। নাজিবের দেশত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। তার বিরুদ্ধে শুরু হয়েছে দুর্নীতির তদন্তও।

এদিকে নাজিব রাজাক-সংশ্লিষ্ট তিনটি অ্যাপার্টমেন্টে গত সপ্তাহে চালানো অভিযানে তিন কোটি ৮৪ লাখ মার্কিন ডলার অর্থ জব্দ করা হয়েছে। অভিযানে ৩৫টি স্যুটকেসভর্তি ডলার ও রিঙ্গিত, ৩৭ ব্যাগভর্তি গহনা ও দামি ঘড়ি, বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মহিলাদের ব্যবহৃত দামি হ্যান্ডব্যাগসহ মোট ২৮৪ বাক্স জব্দ করা হয়েছে। উদ্ধার করা হাতব্যাগ, ঘড়ি ও গয়নার মূল্য নিরূপণের চেষ্টাও করছে তদন্তকারীরা।

গত ৯ মে মালয়েশিয়ার ক্ষমতায় আসার এক সপ্তাহের মধ্যেই প্রতিশ্রুতি মোতাবেক ৬ শতাংশ ভোক্তা কর বাতিল করেন মাহাথির মোহাম্মদ। ১ জুন থেকে এই খাতে কর একেবারে শূন্য হয়ে যাবে বলে জানিয়েছে মালয়েশিয়ার অর্থ মন্ত্রণালয়। অতীতে এই করের কারণে মালয়েশিয়ার জীবনযাত্রার ব্যয় অনেক বেড়ে গিয়েছিল বলে জনগণের ধারণা।

মাহাথির বলেছেন, মালয়েশিয়ার বৈদেশিক দেনার পরিমাণ ২৫০ বিলিয়ন ডলারের চেয়েও বেশি। এ ঋণ দেশটির মোট জিডিপির ৬৫ শতাংশের সমান। আর এ দেনা কমানোর উপায় নিয়ে তিনি কাজ করছেন।

রাষ্ট্রীয় ব্যয় ও দেনা কমানোর জন্য চীনের ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোডের মালয়েশীয় অংশের রেল প্রকল্পটির শর্ত নিয়ে পুনরায় আলোচনা করছেন মাহাথির। সাবেক প্রশাসনের অনুমোদিত প্রকল্পগুলোর শর্ত শিথিলের মাধ্যমে ৫ হাজার কোটি ডলার ঋণ হ্রাসের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তিনি। এ ছাড়া সিঙ্গাপুরের সঙ্গে একটি দ্রুতগতির রেল প্রকল্পও বাতিলের পরিকল্পনা করছেন তিনি। এতে রাষ্ট্রীয় ব্যয় কমে আসবে।



মন্তব্য