kalerkantho


যুক্তরাষ্ট্রে বোরকা পরা নারীকে কটূক্তি! অতঃপর ...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মে, ২০১৮ ২৩:০২



যুক্তরাষ্ট্রে বোরকা পরা নারীকে কটূক্তি! অতঃপর ...

বোরকা পরা তরুণীকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার রিভারসাইডে এক কফিশপের সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে এক ব্যক্তি জানতে চান, হ্যালোউইন না অন্য কিছু?

চমকে ওঠেন  ক্যাথলিন আমিনা ডিডি। তার দিকে ঝুঁকে পড়ে আগন্তুক কী বলতে চাইছেন? ততোক্ষণে সেই কফিশপের দুই কর্মীরও নজরে পড়েছে বিষয়টি।

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন করেন ডিডি, এ ধরনের কথা কেন বলছেন? সেইসঙ্গে মুঠোফোনে পুরো ঘটনা ভিডিও করে রাখতে থাকেন। ডিডির প্রশ্নের জবাবে লোকটি বলেন, কেন বলব না? ডিডি আবার জিজ্ঞাসা করেন, কেন বলবেন?

তিনি বলেন, আমার ইচ্ছা তাই।

ডিডি আবার জানতে চান, কেন? আমার ভুলটা কোথায়? আপনি বুঝতে পারছেন না, আমি মুসলিম?

সেই ব্যক্তি এবার ঘুরে তাকিয়ে তীক্ষ্ণ স্বরে জবাব দিলেন, হ্যাঁ, জানি।

আর সেই লোকটি বলে চলেছে, আমি তোমাদের পছন্দ করি না। তোমাদের ধর্মকে পছন্দ করি না। তোমাদের ধর্ম তো বলে মানুষ খুন করতে। আমি তোমার হাতে খুন হতে চাই না।

ততোক্ষণে কফিশপের কর্মীরা এগিয়ে এসেছেন। ভিডিওতে দেখা যায়, শেষে ল্যানডাউও ডিডি-র পাশে দাঁড়িয়ে বলতে থাকেন, বেরিয়ে যান এখান থেকে। কফিশপের কর্মীরাও ডিডি-র পাশে দাঁড়ান। লোকটিকে খাবার পরিবেশনও করেননি তাঁরা। শেষে তিনি খাবার প্যাক করিয়ে নিয়ে যান। ডিডি তখনো রেকর্ড করে যাচ্ছিলেন।

ডিডি বলেন, আপনারা উনাকে খাবার পরিবেশন করবেন না? তরুণী কর্মীর ততক্ষণাৎ জবাব, না। উনি গণপরিসরে বিশৃঙ্খলা তৈরি করছেন। আর জাতিবিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন।

ডিডি-র সেই ভিডিয়ো টুইটারে ২০ লক্ষ মানুষ দেখে ফেলেছেন। খবর হয়ে গেছে বিভিন্ন সংবাদপত্রে। ডিডির ভিডিওর শেষদৃশ্যে আবারো ব্যস্তসমস্ত কাউন্টার। যে যার কাজে মন দিয়েছেন। ‘ধন্যবাদ’ বলে শেষ করলেন তরুণী।

তবে অনেকেরই বক্তব্য, দেশের প্রেসিডেন্ট যদি এ ধরনের কথা বলেন, তাহলে আর সাধারণ নাগরিক বাদ যাবে কেন? নির্বাচনের আগে প্রচারের সময়ে যে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রকাশ্যে মন্তব্য করেছিলেন, ইসলাম আমাদের ঘৃণা করে।

 



মন্তব্য