kalerkantho


১২ দেশে ৪২৫ আশ্রম ধর্ষক আসারামের!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২১:০৯



১২ দেশে ৪২৫ আশ্রম ধর্ষক আসারামের!

চা বিক্রি করে, রিক্সা চালিয়ে যা রোজগার হতো সেটা দিয়েই সংসার চালাতেন ধর্ষক ধর্মগুরু আসারাম বাপু। গুজরাটের সবরমতী নদীর তীরে একটি সাদাসিধে আশ্রম চালু করে বিশাল সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেন তিনি।

গত ৪০ বছরে ১২টি দেশে অন্তত চারশ ২৫টি আশ্রম গড়ে তুলেছেন তিনি। জানা গেছে, খোদ ভারতেই ৫০টিরও বেশি আবাসিক স্কুল রয়েছে আসারামের। আশ্রম চালিয়ে ৪০ বছরে ১০ হাজার কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়েছেন তিনি।

আসারাম মনে করতেন, যারা 'ব্রহ্মজ্ঞানী' বা 'সাধক', তাদের জন্য ধর্ষণ করাটা পাপ নয়। তার আশ্রমে এক স্কুলছাত্রীকে নিপীড়নের প্রত্যক্ষদর্শী রাহুল কে সাচার আদালতের কাছে এ তথ্য জানান।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে রাহুল কে সাচারের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, যৌন সক্ষমতা বাড়াতে নিয়মিত ওষুধ সেবন করতেন আসারাম।

তিনি আরো বলেন, ধর্মগুরুর 'আশ্রমে' প্রবেশের অনুমতি ছিল তার। ২০০৩ সালে রাজস্থানের পুস্কর, হরিয়ানার ভিওয়ানি এবং গুজরাটের আহমেদাবাদের আশ্রমে তরুণীদের যৌন-নিপীড়ন চালাতে দেখেছেন আসারামকে।

আসারামের কাছে একটি চিঠি লিখে সাচার জানতে চান, কেন তরুণীদের সঙ্গে এ ধরনের কাজ করছেন আসারাম। আসারাম চিঠি পড়লেও কোনো জবাব দেননি। পরে দ্বিতীয় আরেকটি চিঠি লিখেন সাচার।

এবারও জবাব না পেয়ে জোরপূর্বক আশ্রমে প্রবেশ করে আসারামের কাছে জানতে চান, কেন তিনি প্রশ্নের জবাব দিচ্ছেন না? জবাবে আসারাম জানান, 'ব্রহ্মজ্ঞানী বা সাধকরা সব কিছু করতে পারে, তাদের জন্য পাপের কিছু নেই।'


মন্তব্য